ভারতে ধর্মগুরুর ধর্ষণ মামলার রায়: দাঙ্গার আশঙ্কায় সর্তকতা

  

পিএনএস ডেস্ক:ভারতে এক স্বঘোষিত ধর্মগুরুর ধর্ষণ মামলার রায়কে কেন্দ্র করে দাঙ্গার আশঙ্কা করছে কর্তৃপক্ষ। কেন্দ্রীয় সরকার রাজস্থান, গুজরাত ও হরিয়ানার কর্তৃপক্ষকে দাঙ্গার বিষয়ে সতর্ক করেছে বলে জানা গেছে।

৭৭ বছর বয়সী এই স্বঘোষিত ধর্মগুরুর নাম আসারাম বাপু। অভিযোগ, ২০১৩ সালে উত্তরপ্রদেশের শাহাজাহানপুরের ১৬ বছরের এক কিশোরীকে ধর্ষণ করেন তিনি। নিজের আশ্রমে নিয়ে গিয়ে মেয়েটিকে ধর্ষণ করেন আসারাম।

আদালত বসবে জেলে। জোধপুর কেন্দ্রীয় সংশোধনাগারের ভিতরেই আসারামের বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলায় রায় দেবে বিশেষ তফসিলি আদালত। কড়া নিরাপত্তা নেওয়া হয়েছে জেলকে ঘিরে। বিচারক মধুসূদন শর্মাকে বিশেষ নিরাপত্তা দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, আসারামের সমর্থকরা যাতে তেমন কিছু করতে না পারে, সে দিকে কড়া নজর রাখছে পুলিশ। ৩০ এপ্রিল পর্যন্ত জোধপুর জুড়ে ১৪৪ ধারা জারি হয়েছে। শহরে সব বাস টার্মিনাল ও রেল স্টেশনে নজরদারি বাড়ানো হয়েছে। হোটেল ও ধর্মশালায় কারা আসা-যাওয়া করছেন, নজর রাখা হচ্ছে সে দিকেও। শহরের বাইরে পল রোডে আসারামের আশ্রম। দাঙ্গার আশঙ্কায় সেটি ফাঁকা করে দেওয়া হয়েছে।
দাঙ্গার আশঙ্কায় উত্তরপ্রদেশে ওই নিগৃহীতার বাড়ির বাইরেও মোতায়েন করা হয়েছে পুলিশ।

২০১৩ সালে গ্রেপ্তার হওয়ার পর থেকে জেলেই রয়েছে আসারাম। ১২ বার জামিনের আবেদন করেছেন তিনি। খারিজ হয়েছে প্রতি বারই।
গুজরাতের সুরাতেও আসারাম ও তার ছেলের বিরুদ্ধে ধর্ষণের অভিযোগ এনেছেন দুই বোন। বিচার শুরু হওয়ার পর থেকে গত চার বছরে এই দুই মামলার ৯ জন সাক্ষীর উপর হামলা হয়েছে। মারা গেছেন ৩ জন।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech