নতুন সমীকরণ : সামরিক মহড়ায় ভারত-পাকিস্তান

  


পিএনএস ডেস্ক: ইতিহাসে প্রথমবারের মতো একসাথে সামরিক মহড়ায় অংশ নিচ্ছে ভারত ও পাকিস্তান। আগামী আগস্টে রাশিয়ার উরাল পর্বত এলাকায় আয়োজিত বহুজাতিক মহড়ায় অংশ নিতে দেখা যাবে চিরবৈরী দেশ দু’টিকে। ‘পিস মিশন ২০১৮’ শীর্ষক এ মহড়া সাংহাই সহযোগিতা সংগঠনের (এসসিও) একটি কর্মসূচির অংশ। এবারের মহড়ায় সন্ত্রাসবিরোধী অভিযানকে গুরুত্ব দেয়া হবে। এতে ভারত-পাকিস্তান ছাড়াও অংশ নেবে চীন ও রাশিয়াসহ এসসিওর মোট আট সদস্য দেশ।

ভারতের প্রতিরামন্ত্রী নির্মলা সীতারাম মঙ্গলবার (২৪ এপ্রিল) বলেছেন, তারা উরাল পর্বতে বহুজাতিক সামরিক মহড়ায় অংশ নেবেন। ভারত-পাকিস্তান দেশ দু’টির নাম একসাথে উচ্চারিত হতেই যেন অস্ত্রের ঝনঝনানির শব্দ বাজে কানে। স্বাধীনতার পর থেকেই যে বারবার যুদ্ধে জড়িয়েছে দেশ দু’টি। এবার প্রথমবারের মতো এমন সামরিক মহড়ার খবর পরমাণু শক্তিধর দুই দেশের সীমান্তেই জ্বালছে ‘আশার আলো’। অবশ্য যৌথ সামরিক মহড়া এই প্রথম হলেও ভারত ও পাকিস্তানের সৈন্যরা একসাথে জাতিসঙ্ঘ শান্তিরা মিশনে কাজ করেছেন।

দু’পই পেয়েছে জাতিসঙ্ঘ স্বীকৃতি। চীন, রাশিয়া, কাজাখস্তান, তাজিকিস্তান ও কিরগিজস্তানের উদ্যোগে ২০০১ সালে এসসিও গঠিত হওয়ার পর প্রতি দু’বছরে এই ‘পিস মিশন’ মহড়ার আয়োজন করা হয়ে থাকে। এসসিওর মোট আট সদস্যের বাকি তিন দেশ হলো ভারত, পাকিস্তান ও উজবেকিস্তান। এছাড়া চারটি দেশ রয়েছে ‘পর্যবেক’ হিসেবে এবং ছয়টি দেশ রয়েছে ‘সংলাপের অংশীদার’ হিসেবে। সূত্র: পাকিস্তান টুডে

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech