ফের ভারত-চীন নতুন করে যুদ্ধ সোনার খনি নিয়ে!

  


পিএনএস ডেস্ক: দোকালাম-পরবর্তী প্রেক্ষিতে অরুণাচল নিয়ে ফের চীন-ভারত সঙ্ঘাতের শঙ্কা সৃষ্টি হয়েছে! ইঙ্গিত অন্তত তেমনটাই। সৌজন্যে, ভারত সীমান্তে সোনার খনির সন্ধান পাওয়া গেছে বলে খবর পাওয়া গেছে। অরুণাচল সীমান্তবর্তী নিজেদের ভূখণ্ডে জোরকদমে খননকাজ শুরু করেছে বেইজিং। যেখানে সোনা, রুপোসহ অন্যান্য মূল্যবান খনিজের বিশাল সম্ভারের খোঁজ পাওয়া গেছে। যার আনুমানিক মূল্য ৬০০ কোটি মার্কিন ডলার। আর এই স্বর্ণখনির সন্ধান অরুণাচলকে কেন্দ্র করে নতুন করে চীন-ভারত সঙ্ঘত উস্কে দিয়েছে।

হংকংয়ের ‘সাউথ চায়না মর্নিং পোস্ট’ তার প্রতিবেদনে জানিয়েছে, চীনের অধীনে থাকা হুনজে কাউন্টিতে এই খননকাজ শুরু হয়েছে। ভারতীয় সীমান্ত লাগোয় হল এই হুনজে প্রদেশ। অরুণাচলকে দীর্ঘ দিন ধরেই চীন দক্ষিণ তিব্বত বলে দাবি করে আসছে। সে কারণেই প্রধানমন্ত্রী, রাষ্ট্রপতি বা ভারতের যেকোনো পদস্থ কর্মকর্তা সেখানে পা রাখলে তার প্রতিবাদ জানায় বেইজিং। সেই পরিপ্রেক্ষিতে এই স্বর্ণখনির সন্ধান ও সেখানে খননকাজ চীনের পালে হাওয়া দেবে বলে জানিয়েছে মর্নিং পোস্ট। জোরদার করবে অরুণাচলের দাবিকে।
প্রকল্পের সঙ্গে যুক্ত কর্মকর্তাদের উদ্ধৃতি করে প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, প্রাকৃতিক সম্পদের সম্ভার এই অঞ্চল দক্ষিণ তিব্বতের দাবিকে আরো সুদৃঢ় করবে। খনিজ উত্তোলনের পাশাপাশি সংশ্লিষ্ট সীমান্তে ব্যাপক নির্মাণকাজ অরুণাচলকে আরেকটা ‘দক্ষিণ চীন সাগরে’ পরিণত করতে পারে বলে জানিয়েছে ওই পত্রিকা।

গত এপ্রিলের শেষে ইনফর্মাল বৈঠকে যোগ দিতে চীনে গিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তার একমাস কাটতে না কাটতেই অরুণাচল লাগোয়া প্রাকৃতিক সম্পদের ভাণ্ডার নিয়ে এই রিপোর্ট প্রকাশ করল মর্নিং পোস্ট। ভারত-ভুটান-চীনের ত্রিদেশীয় অঞ্চল দোকালাম অচলাবস্থা নিয়ে বেইজিং-নয়াদিল্লির সম্পর্কের যে টানাপোড়েন শুরু হয়েছিল, তাতে প্রলেপ দিতেই ‘হার্ট টু হার্ট’ বৈঠকে প্রেসিডেন্ট জি জিনপিংয়ের সঙ্গে বৈঠক করেন মোদি। বেআইনি নির্মাণকে কেন্দ্র করে ৭৩ দিন চলেছিল দোকালাম অচলাবস্থা।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech