যে কারণে নিজের পা কেটে খাওয়ালেন বন্ধুকে! (ভিডিও)

  

পিএনএস ডেস্ক : ইংরেজদের উপনিবেশ বিস্তৃতির সময়ে জনৈক আফ্রিকা প্রবাসী একটি বই লিখেছিলেন, যার নাম ‘হাউ টু কুক আ ক্রোকোডাইল’। ওই বইয়ে সিংহের স্টেক, জেব্রার ফ্রাই, হিপ্পোক হ্যাম ইত্যাদির রেসিপি ছিল। কিন্তু নরমাংস? না, তারা এই একটি ব্যাপারে বেজায় দূরত্বে ছিল।

ক্যানিবলিজমকে নিয়ে পশ্চিমা সভ্যতার একটা জটিল ঝামেলা রয়েছে। কোনো জনগোষ্ঠীকে হেয় করতে হলেই দীর্ঘকাল ধরে ইউরোপ তাকে ‘নরমাংসভোজী’ আখ্যা দিয়েছে।

কিন্তু সম্প্রতি সামাজিক মাধ্যম রেডিট-এ ‘ইনক্রেডিবলিশাইনিশার্ট’ নামের এক ইউজার জানিয়েছেন, তিনি তার বন্ধুদের নিজের কাটা পা দিয়ে এক বিশেষ পদ রান্না করে খাইয়েছেন। তিনি নিজেও তৃপ্তিসহকারেই এই পায়ের মাংস খেয়েছেন। সেটাও তিনি অকপটে লিখেছেন।

আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম ‘মিরর' খবরে বলা হয়েছে, রেডিটের ওই ইউজার জানিয়েছেন, এক মোটরসাইকেল অ্যাক্সিডেন্টে তার পায়ে আঘাত লাগে। সেখানে পচন ধরায় সেই পা কেটে বাদ দিতে হয়। মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রের বাসিন্দা এই ভদ্রলোক তার কাটা যাওয়া পা নিজের কাছে রাখতে চাইলে তাকে অনুমতি দেয়া হয়। কারণ সে দেশে এমন দাবি আইনসিদ্ধ।

এ ঘটনার তিন সপ্তাহ পরে তিনি এক ডিনার পার্টির প্রস্তুতি নিতে শুরু করেন। সেখানে তিনি এই কাটা পায়ের একটি পদ রান্না করবেন বলে জানান। এর আগে তিনি ও তার বন্ধুরা নরমাংস খাওয়া স্বাস্থ্যকর কি না, তা নিয়ে বিস্তর আড্ডা মেরেছেন বলে জানিয়েছেন। এবার সুযোগ মেলায় তিনি ১১ জন বন্ধুকে আমন্ত্রণ জানান। ১০ জন বন্ধু এই বিচিত্র খাবার খেতে রাজি হন।

সারা রাত কাটা পা’টি ম্যারিনেট করা হয়। তার পরে লবন, মরিচ, পেঁয়াজ, লেবুর রস দিয়ে রান্না শুরু করা হয়। কাটা পা দিয়ে তিনি মেক্সিকান পদ ট্যাকো রান্না করেন। তা টম্যাটো সস সহযোগে বন্ধুদের পরিবেশন করেন। বন্ধুরা রীতিমতো তৃপ্তিসহকারেই সেই ট্যাকো খান।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech