অভিবাসী জননী ট্রাম্প প্রশাসনের বিরুদ্ধে মামলা করলো

  


পিএনএস ডেস্ক: নিজের গর্ভের সন্তানকে কাছে পেতে যুক্তরাষ্ট্র প্রশাসনের বিরুদ্ধে মামলা করেছেন এল সালভাদরের এক অভিবাসী জননী।

সিএনএন জানায়, ৩০ বছর বয়সী এই নারী লেইডি ডুয়েনাস-কার্লোস যুক্তরাষ্ট্র থেকে তাকে বিতাড়নের পক্রিয়া বন্ধ করারও চেষ্টা নিয়েছেন এবং তিনি চান, সরকার তার নাকচ হওয়া আশ্রয়ের আবেদন আবার বিবেচনা করে দেখুক।

ডুয়েনাসের এটর্নি ক্লডিয়া ও ব্রায়েন বৃহস্পতিবার বলেছেন, আমরা বিচারকের সামনে হাজির হওয়ার অপেক্ষায় আছি। পরে এ ব্যাপারে আরো বিস্তারিত জানাতে পারব।

ডুয়েনাসকে বৃহস্পতিবারই যুক্তরাষ্ট্র থেকে ফেরত পাঠানোর কথা থাকলেও পরে সে প্রক্রিয়া পিছিয়ে গেছে বলে জানানো হয়।

ডুয়েনাস গত মে মাসে তার ১১ মাসের শিশুকন্যাকে নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রে যান আশ্রয় প্রার্থনা করতে এবং শিশুটি জন্মসূত্রে আমেরিকান বলে জানানো হয়েছে মামলার নথিতে।

কিন্তু সীমান্ত পেরোনোর পরই তাদেরকে বিচ্ছিন্ন করে ফেলা হয়। সন্তানকে কাছে না পেয়ে চরম মনোকষ্টে পড়েন মা।

জুলাইয়ে তার আশ্রয়ের আবেদনও নাকচ হয়।

যুক্তরাষ্ট্রের প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প প্রশাসনের ইমিগ্রেশন নীতিতে জিরো টলারেন্সের কারণে হাজার হাজার শিশু এভাবে পরিবার বিচ্ছিন্ন হয়ে বন্দি জীবন কাটাচ্ছে।

তীব্র সমালোচনার মুখে ট্রাম্প পরিবার বিচ্ছিন্নের এই নির্মম প্রক্রিয়া বন্ধে নির্বহী আদেশ সই করলেও এখনো বহু মা এবং শিশু একে অপরের কাছ থেকে বিচ্ছিন্ন রয়েছে।

এল সালভাদরের ওই জননী ও তার সন্তানও এখনো সে দলেই রয়েছে বলে উল্লেখ করা হয়েছে মামলায়। সূত্র: সিএনএন

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech