নরওয়ে সৌদির কাছে আর অস্ত্র বিক্রি করবে না

  


পিএনএস ডেস্ক: সৌদি আরবে অস্ত্র রপ্তানি বন্ধ করে দেওয়ার ঘোষণা দিয়েছে নরওয়ে। সম্প্রতি দেশটিতে চলমান পরিস্থিতি ও ইয়েমেনে এর সংশ্লিষ্টতা বিচারে এমন সিদ্ধান্ত নিয়েছে নরওয়ে। খবর আল জাজিরার।

নরওয়ের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ইনে এরিকসেন এক বিবৃতিতে বলেন, আমরা বর্তমান পরিস্থিতিতে সিদ্ধান্ত নিয়েছি যে, সৌদি আরবে প্রতিরক্ষা সরঞ্জাম বা সামরিক ব্যবহারের জন্য পাঠানো পণ্য রপ্তানির নতুন লাইসেন্সের অনুমোদন দেবো না।

নরওয়ে তাদের বিবৃতিতে সৌদি লেখক ও সাংবাদিক জামাল খাশোগি হত্যাকাণ্ডে সৌদির সংশ্লিষ্টতার কথা উল্লেখ করেনি। এছাড়া, পণ্য বিক্রি বন্ধের কারণ হিসেবেও এ ঘটনার কথা উল্লেখ করেনি। তবে তারা জানিয়েছে, সৌদি আরবের পরিস্থিতির সাম্প্রতিক তৎপরতা ও ইয়েমেনে তাদের সংশ্লিষ্টতার জের ধরে এ সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

উল্লেখ্য, খাশোগির হত্যাকাণ্ড ইস্যুতে এক সপ্তাহ আগে সৌদি দূতকে তলব করেছিল নরওয়ের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। এরপর শুক্রবার দেশটিতে সামরিক সরঞ্জাম রপ্তানি বন্ধের সিদ্ধান্ত জানানো হয়।

এছাড়া, খাশোগির হত্যাকাণ্ডের জের ধরে গত মাসে জার্মানি বলেছিল,খাশোগির হত্যা ব্যাখ্যা না করা পর্যন্ত সৌদি আরবে অস্ত্র রপ্তানি বন্ধ রাখা হবে।

এদিকে দ্য গার্ডিয়ানের এক খবরে বলা হয়েছে, ইয়েমেনে সৌদি জোটের বিমানে জ্বালানী সরবরাহ বন্ধ করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র।

ওয়াশিংটনে সৌদি দূতাবাস থেকে প্রকাশিত এক বিবৃতিতে বলা হয়, ইয়েমেনে তাদের বিমানগুলোতে যুক্তরাষ্ট্রের জ্বালানী সরবরাহ বন্ধ করার অনুরোধ জানিয়েছে সৌদি আরব।

সৌদি আরব জানিয়েছে, জ্বালানী ভরার কাজটি তারা নিজেরাই করতে পারবে। সৌদির এ পদক্ষেপের প্রতি সমর্থন জানিয়েছে মার্কিন প্রতিরক্ষামন্ত্রী জিম ম্যাটিস।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech