বেতন না পাওয়া কর্মীদের জন্য বুশের পিৎজা

  


পিএনএস ডেস্ক: সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ ইস্যুতে বিতর্কের জেরে চার সপ্তাহ ধরে বেতন পাচ্ছেন না যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল সরকারের বিপুলসংখ্যক কর্মী। এ অবস্থায় সিক্রেট সার্ভিস বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারীদের জন্য পিৎজা নিয়ে গেছেন সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ। তিনি নিজেই সেসব পিৎজা বহন করে নিয়ে যান।

মেক্সিকো সীমান্তে দেয়াল নির্মাণ ইস্যুতে কংগ্রেসে প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও ডেমোক্র্যাটদের টানাপোড়েনে ফেডারেল সরকারের ২৫ শতাংশের কাজ বন্ধ হয়ে রয়েছে। এটাকে বলা হচ্ছে শাটডাউন।

দেয়াল নির্মাণে প্রেসিডেন্ট ৫৭০ কোটি ডলার অর্থ বরাদ্দ চেয়েছেন। তবে কংগ্রেসে এ বরাদ্দ পাস করতে দেননি ডেমোক্র্যাটরা। এ কারণে অন্যান্য বাজেট বরাদ্দের নথিতে সই করা থেকে বিরত রয়েছেন ট্রাম্প। এ কারণে গত ২২ ডিসেম্বর থেকে ফেডারেল সরকারের বেশ কিছু বিভাগের আট লাখ কর্মী বাজেটের অভাবে বেতন পাচ্ছেন না। এর মধ্যে সাড়ে তিন লাখ কর্মীকে ছুটিতে পাঠানো হয়েছে। বাকিরা বিনা পারিশ্রমিকে কাজ চালিয়ে যেতে বাধ্য হচ্ছেন। অর্থের এমন অনিশ্চয়তার মধ্যে হাজার হাজার কর্মী ইতিমধ্যে বেকার ভাতাসহ সুবিধাদি পেতে আবেদন করেছেন।

মার্কিন সাময়িকী রোলিং স্টোনের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, সিক্রেট সার্ভিসের বেতন ছাড়া দিন যাপন করা কর্মীদের জন্য গত শুক্রবার পিৎজা নিয়ে যান সাবেক মার্কিন প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশ।

ইনস্টাগ্রামে বুশ এক পোস্টে শাটডাউন শেষ করার আহ্বান জানিয়েছেন। তবে তিনি কোনো দলের প্রতি সমর্থন দেননি। তিনি বলেছেন, এখন সময় হয়েছে দুই পক্ষের নেতাদের রাজনীতি এক পাশে সরিয়ে রেখে শাটডাউন বন্ধে এক হওয়া।

কোনো সাবেক প্রেসিডেন্টের এ ধরনের পদক্ষেপ মার্কিন ইতিহাসে বিরল। তাঁরা সাধারণত কোনো ধরনের রাজনৈতিক বিবৃতি দেওয়া থেকে বিরত থাকেন।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech