সৌদিকে কালো তালিকাভুক্ত করল ইইউ

  



পিএনএস ডেস্ক: সন্ত্রাসবাদে অর্থায়ন ও অবৈধ অর্থপাচার ঠেকাতে ব্যর্থ বিশ্বের কয়েকটি দেশকে কালো তালিকাভূক্ত করেছে ইউরোপীয় ইউনিয়ন (ইইউ)। বুধবার এই তালিকায় মধ্যপ্রাচ্যের দেশ সৌদি আরবকেও অন্তর্ভূক্ত করেছে ইউরোপের ২৮ দেশের এই সংগঠন। আগামী সপ্তাহে চূড়ান্ত অনুমোদন পাবে ইইউর এই কালো তালিকাভূক্তি।

ইইউ এক বিবৃতিতে বলছে, এই তালিকার লক্ষ্য হচ্ছে অর্থপাচার এবং সন্ত্রাসবাদে অর্থায়নের ঝুঁকি আরও ভালভাবে ঠেকাতে ইইউর আর্থিক ব্যবস্থাকে রক্ষা করা।
কালো তালিকাভূক্তির ফলে ইইউর অর্থপাচারবিরোধী আইনের আওতায় যেসব ব্যাংক এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে তারা উচ্চ ঝুঁকিপূর্ণ এসব দেশের গ্রাহক এবং প্রতিষ্ঠানের আর্থিক লেনদেনের ক্ষেত্রে অধিক সতর্কতা অবলম্বন করবেন।

সৌদি আরব ছাড়াও ইইউর এই কালো তালিকায় জায়গা হয়েছে আফগানিস্তান, আমেরিকান সামোয়া, দ্য বাহামাস, বতসোয়ানা, উত্তর কোরিয়া, ইথিওপিয়া, ঘানা, গুয়াম, ইরান, ইরাক, লিবিয়া, নাইজেরিয়া, পাকিস্তান, পানামা, পুয়ের্তো রিকো, সামোয়া, শ্রীলঙ্কা, সিরিয়া, ত্রিনিদাদ অ্যান্ড টোবাগো, তিউনিশিয়া, যুক্তরাষ্ট্রের ভার্জিন দ্বীপ ও ইয়েমেন।

নির্বাসিত সাংবাদিক জামাল খাশোগির নিষ্ঠুর হত্যাকাণ্ডের ঘটনায় আন্তর্জাতিক পরিমণ্ডলে কোনঠাসা হয়ে থাকা সৌদি আরবের জন্য এই মুহূর্তে ইউরোপীয় ইউনিয়নের কালো তালিকাভূক্তির ঘটনা বড় ধরনের ধাক্কা।
ওয়াশিংটন পোস্টের ওই সাংবাদিক গত বছরের ২ অক্টোবর তুরস্কের ইস্তাম্বুলের সৌদি কনস্যুলেটে খুন হন। দুর্বৃত্ত অভিযানে খাশোগি খুন হয়েছেন বলে স্বীকার করেছে সৌদি আরব। এই হত্যাকাণ্ড নিয়ে ব্যাপক কূটনৈতিক চাপের মুখে রয়েছে দেশটি।
সূত্র : আনাদোলু, দ্য ফিন্যান্সিয়াল এক্সপ্রেস।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech