হিজাব পরলেন নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রী

  


পিএনএস ডেস্ক: নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চে গত শুক্রবার জুমার নামাজের সময় দুটি মসজিদে চালানো সন্ত্রাসী হামলার ঘটনায় স্তব্ধ গোটা বিশ্ব। নিউজিল্যান্ডের মত শান্তিপ্রিয় দেশে এমন সাম্প্রদায়িক আক্রমণকে কেউ মেনে নিতে পারছেন না। এমন ঘটনায় সবাই নিউজিল্যান্ডের পাশে দাঁড়িয়েছে।

তবে, মুসলমানদের জন্য নিউজিল্যান্ডবাসীর শোক প্রকাশের বিষয়টি সত্যিই সবার মনে নাড়া দিয়েছে। দেশটির প্রধানমন্ত্রী থেকে শুরু করে, উচ্চপদস্থ পুলিশ অফিসার, সরকারি কর্মকর্তা সর্বোপরি দেশটির জন সাধারণ শোকে স্তব্ধ। গোটা নিউজিল্যান্ডকে নাড়িয়ে দিয়েছে এমন ন্যাক্কারজনক হামলা।

দেশটির প্রধানমন্ত্রী জাসিন্দা আর্ডানকে বারবার গণমাধ্যমের সামনে এসে নিজেই তথ্য জানাতে দেখা গেছে। সংবাদ সম্মেলন থেকে শুরু করে আহতদের দেখতে যাওয়া, তাদের খোঁজখবর নেয়া- সবখানেই নিজে যাচ্ছেন। যেখানেই যাচ্ছেন, যার সঙ্গেই কথা বলছেন, সবখানেই তাকে দেখা যাচ্ছে বিমর্ষ অবয়বে।

শোক প্রকাশে শুধু কালো পোশাকই পরেননি, মসজিদে নামাজরত মুসলিমদের হামলার ঘটনায় নিউজিল্যান্ডের মুসলিমদের প্রতি একাত্মতা প্রকাশে মাথায় ওড়না পরিধান করেছেন ৩৮ বছর বয়সী নারী প্রধানমন্ত্রী।

জাসিন্ডা আর্ডানের আচরণ আর চেহারার অভিব্যক্তিতেই বোঝা যাচ্ছে, শোক শুধু তার বক্তব্যে নেই, ভয়াবহ এ হামলার শোক তার মনেও আঘাত হেনেছে।

নিউজিল্যান্ডের প্রধানমন্ত্রীর এমনই কিছু ছবি ঘুরে বেড়াচ্ছে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমসহ বিভিন্ন দেশের গণমাধ্যমগুলোতে। এগুলোর মধ্যে কয়েকটি ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ব্যাপকভাবে ছড়িয়েছে পড়েছে।

একটি ছবিতে দেখা যায়, কালো পোশাকের সঙ্গে কালো ওড়না মাথায় জড়িয়ে দাঁড়িয়ে আছেন জাসিন্দা। করুণ দৃষ্টিতে তাকিয়ে আছেন। ছল ছল চোখ। যেন নিকটতম কোন স্বজন বিয়োগে ভারাক্রান্ত হৃদয়। দেখে মনে হচ্ছে হয়তো এক্ষুণি কেঁদে ফেলবেন। কিন্তু হাত দুটো একসঙ্গে শক্ত করে মুষ্টিবদ্ধ করে রেখেছেন তিনি, যেন দেশের এই ভয়ানক শোকের দিনে নিজেকে শক্ত রাখার চেষ্টা করছেন।

জাসিন্ডা আর্ডান তার পোশাকের মধ্য দিয়ে দেশের শোকাহত মুসলিম জনগোষ্ঠীর সঙ্গে একাত্মতা প্রকাশ করেছেন। ছবিতে তার দাঁড়ানোর ভঙ্গি আর চোখের দৃষ্টিই মনকে নাড়িয়ে দেয়ার মতো। এই ছবি সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে শেয়ার করে অনেকেই বলছেন, প্রধানমন্ত্রী যেন এর মধ্য দিয়ে শুধু নিজের শোক নয়, পুরো দেশের শোককে তুলে ধরেছেন।

অন্য একটি ছবিতে প্রধানমন্ত্রীকে মুসলিমদের উদ্দেশে কথা বলতে দেখা গেছে। সেখানেও তাকে দেখে মনে হবে যেন তারই কোন প্রিয় স্বজনের বিয়োগে ব্যাথিত মন নিয়ে বসে আছেন।

এক বার্তায় তিনি বলেছেন, এটি আমাদের দেশের জন্য বিশাল এক শোকের ঘটনা। আপনারাই আমরা, আর তাই যা ঘটেছে তার কষ্ট আমরা মনের গভীরে অনুভব করতে পারছি।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech