ফেসবুকে গরুর মাংসের স্যুপ খাওয়ায় যুবককে দলবেঁধে মারধর

  

পিএনএস ডেস্ক : গরুর মাংসের স্যুপ খাওয়ার ঘটনা ফেসবুকে পোস্ট করার জন্য এক ব্যক্তির ওপর হামলা হয়েছে।

বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) ভারতের তামিলনাড়ু প্রদেশের নাগাপিত্তানাম জেলায় এ ঘটনা ঘটে। এই হামলার সাথে জড়িত থাকার অভিযোগে ৪ জনকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তারা চারজনই একটি হিন্দুত্ববাদী দলের সদস্য বলে জানা যাচ্ছে।

নাগাপিত্তানাম জেলার কিল ভেলুর অঞ্চলের ২৪ বছর বয়সী মোহাম্মদ ফাইসান বৃহস্পতিবার দুপুর ৩টার দিকে নিজের ফেসবুক প্রোফাইল থেকে দুটি ছবি পোস্ট করে যেখানে তিনি গরুর মাংসের স্যুপ খাচ্ছিলেন বলে দেখা যায়। ছবিগুলোর সাথে স্যুপের স্বাদের প্রশংসা করে একটি পোস্টও করেন তিনি। ওই দিন সন্ধ্যায় একই এলাকার চারজন তরুণ ফাইসানকে আক্রমণ করে বলে অভিযোগ ওঠে। হামলায় ঘাড়ে এবং পিঠে চোট পাওয়া ফাইসানকে নাগাপিত্তানামের সরকারি হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

তার সাথে যোগাযোগ করা হলে ফাইসান বলেন, আমার পোস্ট করা ছবির নিচে তারা (হামলাকারীরা) খুবই আপত্তিজনক কমেন্ট পোস্ট করে। কিন্তু কিছুক্ষণ পর তারা সেসব কমেন্ট সরিয়ে নেয়। পরে আমি যখন প্রোভাচেরি মারিয়াম্মান মন্দিরের সামনে বসে ছিলাম তখন তারা দলবেঁধে আসে এবং আমার ওপর হামলা চালায়।

কিল ভেলুর পুলিশ স্টেশন জানায় যে তারা চারজনকে আটক করেছে যারা হিন্দুত্ববাদী দল 'হিন্দু মাক্কাল কাটচি'র সদস্য।

হিন্দু মাক্কাল কাটচির নেতা অর্জুন সাম্পাথের সাথে যোগাযোগ করা হলে তিনি বলেন, মোহাম্মদ ইউনুস নামের এক ব্যক্তি তার খাওয়ার দোকানের প্রচারণায় বলেছেন 'যদি গরু আপনার ইশ্বর হয় তাহলে আমরা তাকে খাবো।' এ বিষয়ে পুলিশে একটি অভিযোগ দায়ের করেছি আমরা। কিন্তু পুলিশে অভিযোগ করা হলেও এবিষয়ে কোনো পদক্ষেপ নেয়া হয়নি।

হামলার শিকার মোহাম্মদ ফাইসান এই প্রচারণাকে সমর্থন করে হিন্দুত্ববাদী দলের এক নেতার সাথে বিবাদে জড়িয়ে পড়েন বলেই তার ওপর হামলা চালানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেন অর্জুন সাম্পাথ।

এই ঘটনায় কিল ভেলরের পুলিশ সুপারের বক্তব্যের জন্য যোগাযোগ করা হলেও তার কোন মন্তব্য পাওয়া যায়নি।সূত্র: বিবিসি বাংলা।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech