তেলের ট্যাংকার ছেড়ে দিতে ইরানকে যে শর্ত দিল ব্রিটেন!

  

পিএনএস ডেস্ক : পারস্য উপসাগর থেকে আটক ইরানের তেলের ট্যাংকারটি ছেড়ে দিতে একটি শর্ত দিয়েছে যুক্তরাজ্য। শর্তটি হচ্ছে, ট্যাংকারটি সিরিয়ায় যাবে না এমন প্রতিশ্রুতি দিতে হবে ইরানকে। ব্রিটিশ পররাষ্ট্রমন্ত্রী জেরেমি হান্ট শনিবার ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোহাম্মদ জাভেদ জারিফকে এ কথা জানিয়েছেন। সিরিয়ার বিরুদ্ধে আরোপ করা নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘনের সন্দেহে গত সপ্তাহে জিব্রালটার প্রণালী থেকে ট্যাংকারটি আটক করে ব্রিটিশ রয়্যাল মেরিনস। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

গত ৪ জুলাই গ্রেইস-১ নামের এসুপারট্যাংকার জব্দ করেছে ব্রিটিশ নৌবাহিনী। ইরানের দাবি, যুক্তরাষ্ট্রের ইঙ্গিতেই ইরানি তেল ট্যাংকারটি ব্রিটিশ কর্তৃপক্ষ আটকে রেখেছে। এ নিয়ে ব্রিটেনের সঙ্গে উত্তেজনা চলছে ইরানের। এমন উত্তেজনার পরিপ্রেক্ষিতে গত শনিবার ইরানের হাতে আটক হওয়ার ভয়ে ব্রিটিশ পেট্রোলিয়ামের একটি সুপারট্যাংকার হরমুজ প্রণালীতে না ঢুকে সৌদি উপকূলে অবস্থান করছে।

শনিবার ওই জাহাজের ক্যাপ্টেন ও প্রধান কর্মকর্তাহ আটক চার ক্রুকেই শুক্রবার ছেড়ে দেয়া হয়েছে। এছাড়া পারস্য উপসাগরে একটি ব্রিটিশ তেল ট্যাংকারকে ধাওয়া দিয়েছেন ইরানের তিনটি সশস্ত্র গানবোট। যদিও ব্রিটিশ তেল ট্যাংকারকে ধাওয়ার বিষয়টি অস্বীকার করেছে ইরান।

শনিবার ইরান ট্যাংকারটি ছেড়ে দেয়ার আহ্বান পুনর্ব্যক্ত করে। ইউরোপিয়ান ইউনিয়নের নিষেধাজ্ঞা লঙ্ঘনের দাবিও প্রত্যাখ্যান করে দেশটি। ইরান পারস্য উপসাগর থেকে একটি ব্রিটিশ ট্যাংকার আটকের চেষ্টা করে বলে বৃহস্পতিবার ব্রিটেন জানানোর পর অঞ্চলটিতে উত্তেজনা বৃদ্ধি পায়।

হান্ট জানান, ইরানের পররাষ্ট্রমন্ত্রীর আহ্বান গঠনমূলক। জারিফ তাকে জানিয়েছেন যে ইরান সমস্যাটির সমাধান চায় এবং উত্তেজনা বাড়াতে আগ্রহী নয়। তিনি টুইটারে লেখেন, আমি তাকে আবারও নিশ্চিত করেছি যে, আমাদের উদ্বেগের বিষয় গ্রেস -১ এ থাকা তেলের গন্তব্য। তিনি আরও লেখেন, যুক্তরাজ্য ট্যাংকারটি ছেড়ে দেবে, যদি এটা একই পথ (জিব্রালটার) হয়ে সিরিয়ার যাবে না এমন প্রতিশ্রুতি পায়।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech