জাতিসংঘে নেতানিয়াহুর সফর বাতিল

  

পিএনএস ডেস্ক: দ্বিতীয় দফায় সাধারণ নির্বাচনেও একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে না পারার পর জাতিসংঘ সফর বাতিল করেছেন ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী বেনিয়ামিন নেতানিয়াহু।

বুধবার ইসরাইলি সংবাদমাধ্যমে এ খবর প্রকাশিত হয়েছে বলে আন্তর্জাতিক গণমাধ্যমগুলো জানিয়েছে। ইসরাইলের জাতীয় নির্বাচনের ঠিক কয়েক ঘন্টা পরই এ সফর বাতিল করা হয়েছে, যে নির্বাচনে নেতানিয়াহু জোট আবারও সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জনে ব্যর্থ হয়।

গত মঙ্গলবার পাঁচ মাসের ব্যবধানে দ্বিতীয় দফা নির্বাচনে একক সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারেনি ইসরাইলের কোনো দল। ফলে ইহুদিবাদী অবৈধ রাষ্ট্রটিতে এক ধরনের রাজনৈতিক অচলাবস্থা সৃষ্টি হয়েছে। এ অবস্থায় বুধবার জাতিসংঘ অধিবেশনে যোগ না দেয়ার সিদ্ধান্ত ঘোষণা করেন নেতানিয়াহু।

ইসরাইলের প্রধানমন্ত্রী দফতরের এক কর্মকর্তা জানান, নেতানিয়াহু এই বছর নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সাধারণ অধিবেশনে অংশ নেবেন না। যেখানে তিনি প্রতিবছর ইসরাইলের স্বার্থসংশ্লিষ্ট বিভিন্ন বিষয়ে জোরালো অবস্থান নিতেন।

মঙ্গলবার অনুষ্ঠিত নির্বাচনের ৯২ শতাংশ ভোট গণনা শেষে ১২০ আসনের পার্লামেন্টে দুই বড় দলই ৩২টি করে আসন পেয়েছে। নেতানিয়াহুর নেতৃত্বাধীন ইহুদিবাদী লিকুদ পার্টির জোটগত আসন সংখ্যা দাঁড়াচ্ছে ৫৬। বেনির ব্লু অ্যান্ড হোয়াইট পার্টির জোটগত আসন হচ্ছে ৪৩। ফলে ঐতিহ্যগতভাবেই সরকার গঠন করতে পারছে না কোনো দলই।

এএফপি জানায়, লিকুদ পার্টির ক্ষেত্রে অবশ্য একটা সুযোগ রয়েছে, যদি সাবেক প্রতিরক্ষামন্ত্রী অ্যাভিগডো লিবারম্যানের কট্টর ইহুদিবাদী দল ‘ইসরায়েল বেইতেনু’কে দলে ভেড়াতে পারেন নেতানিয়াহু। ৯টি আসন পাচ্ছে দলটি। ফলে জোট সরকার গঠনে বরাবরের মতো এবারও তিনিই মূলনায়কে পরিণত হয়েছেন। কট্টর ইহুদিবাদী এই নেতার হাতেই এখন সরকারের চাবিকাঠি।

ক্ষমতাসীন জোটে থাকা জাতীয়তাবাদী ইয়ামিনা ৭, দুটি কট্টরপন্থী ইহুদিবাদী দল শাস ও ইউনাইটেড তোরা ৮ ও ৯টি আসন পেয়েছে।

পিএনএস/ হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech