কাশ্মির নিয়ে মাহাথিরের মন্তব্য : পাম ওয়েল আমদানি হ্রাস করবে ভারত

  


পিএনএস ডেস্ক: মালয়েশিয়া থেকে পাম ওয়েলসহ কয়েকটি পণ্য আমদানি সীমিত করার কথা ভাবছে ভারত। কাশ্মির প্রশ্নে নয়া দিল্লির অবস্থান নিয়ে মালয়েশিয়ার নেতার প্রতিক্রিয়ার জের ধরে এই পদক্ষেপ গ্রহণ করা হচ্ছে বলে ভারত সরকার ও শিল্প সূত্র এ তথ্য জানিয়েছে।

একটি সরকারি সূত্র জানায়, ভারত পাম ওয়েল আমদানি সীমিত করার উপায় খুঁজছে, মালয়েশিয়ার অন্যান্য পণ্যের ওপরও বিধিনিষেধ আরোপ করতে চাচ্ছে।
পরিচয় প্রকাশে অনিচ্ছুক সূত্রটি জানায়, প্রস্তাবটি এখনো বিবেচনাধীন রয়েছে।

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী মাহাথির মোহাম্মদের জাতিসঙ্ঘে দেয়া বক্তৃতায় ভারত ক্ষুব্ধ হয়। মাহাথির জম্মু ও কাশ্মিরে হামলা চালিয়ে দখল করার জন্য ভারতের তীব্র সমালোচনা করে সমস্যাটির সমাধানে পাকিস্তানের সাথে কাজ করার জন্য নয়া দিল্লির প্রতি আহ্বান জানান।

মুসলিম সংখ্যাগরিষ্ঠ কাশ্মির ভারত ও পাকিস্তানের মধ্যে বিভক্ত। উভয় দেশই পরিপূর্ণ কাশ্মির নিজেদের দাবি করে। ভারত গত আগস্টে রাজ্যটির বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে।

সূত্রটি জানায়, ভারত সরকার তার অসন্তুষ্টি নিয়ে মালয়েশিয়া কর্তৃপক্ষকে কড়া বার্তা দিতে চায়।

বিশ্বের বৃহত্তম ভোজ্য তেলের আমদানিকারক ভারত এখন মালয়েশিয়ার পাম ওয়েলের বদলে ইন্দোনেশিয়া, আর্জেন্টিনা ও ইউক্রেন থেকে ভোজ্য তেল আমদানি করার কথা ভাবছে।

ভারতের মোট তেল আমদানির প্রায় দুই-তৃতীয়াংশ হয় পাম ওয়েল। ভারত বছরে ৯ মিলিয়ন টনের বেশি পাম ওয়েল আমদানি করে থাকে। প্রধানত ইন্দোনেশিয়া ও মালয়েশিয়া থেকেই ভারত এই তেল আমদানি করে।

২০১৯ সালের প্রথম ৯ মাসে ভারত ছিল মালয়েশিয়ার পাম ওয়েলের বৃহত্তম ক্রেতা। তারা এসময় ৩.৯ মিলিয়ন টন তেল আমদানি করে।

ভারতের বাণিজ্য মন্ত্রণালয়ের এক মুখপাত্র বলেন, এ ব্যাপারে তারা কোনো মন্তব্য করবেন না।

মালয়েশিয়ার প্রধানমন্ত্রী শুক্রবার বলেন, তিনি এখনো ভারতের কাছ থেকে কোনো ‘আনুষ্ঠানিক বক্তব্য’ পাননি।

এর আগে রয়টার্সের খবরে বলা হয়, মালয়েশিয়া থেকে পাম ওয়েল ও অন্যান্য পণ্য আমদানি সীমিত করতে চাচ্ছে ভারত।

মুম্বাইভিত্তিক এক রিফাইনার জানান, মালয়েশিয়া থেকে আমদানি হ্রাস করা হলেও ভারতে ভোজ্য তেলের কোনো স্বল্পতার সৃষ্টি হবে না। কারণ ইন্দোনেশিয়া আরো বেশি তেল ভারতে রফতানি করতে আগ্রহী। তাছাড়া ভারত আর্জেন্টিনা থেকে সয়াবিন ও ইউক্রেন থেকে সানফ্লাওয়ার তেল কিনতে আগ্রহী।

ইন্দোনেশিয়া পাম ওয়েল বিক্রির বিনিময়ে ভারত থেকে চিনি কিনতে আগ্রহী।

ভারত সরকার তুরস্ক থেকেও আমদানি হ্রাস করার পরিকল্পনা করছে। আঙ্কারাও কাশ্মির প্রশ্নে ভারতের সমালোচনা করে আসছে।

কাশ্মির ছাড়াও প্রখ্যাত ইসলামি চিন্তাবিদ জাকির নায়েককে নিয়েও মালয়েশিয়ার সাথে ভারতের দ্বন্দ্ব রয়েছে। মালয়েশিয়ায় অবস্থানরত জাকির নায়েককে প্রত্যাবর্তন চায় ভারত। কিন্তু মালয়েশিয়া তাতে রাজি নয়।

ভারত ২০১৬ সালে সন্ত্রাসবাদের জন্য দায়ী করে জাকির নায়েককে। -রয়টার্স

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন