মৌরিতানিয়া উপকূলে নৌকাডুবি, ৬২ শরণার্থীর প্রাণহানি

  


পিএনএস ডেস্ক: আটলান্টিক মহাসাগরে অভিবাসীপূর্ণ একটি নৌকাডুবির ঘটনায় নারী ও শিশুসহ অন্তত ৬২ জনের মৃত্যু হয়েছে। বৃহস্পতিবার পশ্চিম আফ্রিকার দেশ মৌরিতানিয়ার উপকূলে এই দুর্ঘটনা ঘটে বলে জানিয়েছে জাতিসংঘের অভিবাসন বিষয়ক সংস্থা।

একই দুর্ঘটনায় আরও অনেকে আহত হয়েছেন। তাদের বেশির ভাগই গাম্বিয়ার নাগরিক। তারা ইউরোপে অভিবাসন প্রত্যাশী শরণার্থী ছিলেন।

জাতিসংঘের অভিবাসন বিষয়ক সংস্থা ইন্টারন্যাশনাল অর্গানাইজেশন ফর মাইগ্রেশনের (আইওএম) বরাত দিয়ে আন্তর্জাতিক সংবাদমাধ্যম জানায়, জোড়াতালি দিয়ে তৈরি একটি নৌকায় ১৫০ জনের মত যাত্রী গাম্বিয়া থেকে আটলান্টিক মহাসাগর পাড়ি দিয়ে ইউরোপে যাচ্ছিল। পথে এর জ্বালানি শেষ হয়ে গেলে নৌকাটি মৌরিতানিয়া উপকূলে ডুবে যায়।

আইওএমের মুখপাত্র লিওনার্দো ডয়েল জানান, সমুদ্রযাত্রার অনুপযোগী হওয়ার পাশাপাশি নৌকাটি ধারণক্ষমতার অতিরিক্ত যাত্রী বহন করছিল।

নৌকার বেঁচে যাওয়া যাত্রীরা জানান, তারা গাম্বিয়া থেকে ২৭ নভেম্বর রওনা করেছিলেন।

মৌরিতানিয়া উপকূলের নোয়াযিয়ু শহরে নৌকাটির বেঁচে যাওয়া যাত্রীরা অবস্থান করছে। আহতদের নোওযিয়ু শহরের হাসপাতালে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

এদিকে আইওএমের মধ্য ও পশ্চিম আফ্রিকার আঞ্চলিক কার্যালয়ের কর্মকর্তা ফ্লোরেন্স কিম জানিয়েছেন, মৌরিতানিয়ায় নিযুক্ত গাম্বিয়ায় রাষ্ট্রদূত নৌকাডুবি থেকে বেঁচে যাওয়া যাত্রীদের সঙ্গে সাক্ষাত করেছেন এবং তাদের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে খবরাখবর নিচ্ছেন।

আফ্রিকার অন্যান্য দেশের মতই গাম্বিয়ার মানুষ উন্নত জীবনের সন্ধানে ইউরোপে পাড়ি জমায়। আইওএমের মতে, ২০১৪ থেকে ২০১৮ সালের মধ্যে গাম্বিয়া থেকে ৩৫ হাজার লোক ইউরোপে পাড়ি জমিয়েছেন।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech