হাফতারকে উচিত শিক্ষা দেয়ার হুঙ্কার এরদোগানের

  


পিএনএস ডেস্ক: তুরস্কের প্রেসিডেন্ট রজব তাইয়েব এরদোগান বলেছেন, লিবিয়ার বিদ্রোহী নেতা জেনারেল খলিফা হাফতার যদি দেশটির সরকারের বিরুদ্ধে কোনো রকমের অভিযান বা সহিংসতা শুরু করেন তাহলে তাকে উচিত শিক্ষা দেয়া হবে।

রাশিয়ার রাজধানী মস্কোয় সোমবার লিবিয়ার ত্রিপোলিভিত্তিক সরকারের প্রধান ফাইয়াজ আল-সেরাজ এবং খলিফা হাফতারের মধ্যে সরাসরি আলোচনা হলেও যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে সই না করে হাফতার লিবিয়া ফিরে গেছেন। এরপর এরদোগান গতকাল তুরস্কের ক্ষমতাসীন জাস্টিস অ্যান্ড ডেভলপমেন্ট পার্টি বা একে পার্টির বৈঠকে হাফতারের বিরুদ্ধে এই হুঁশিয়ারি উচ্চারণ করেন।

এরদোগান বলেন, ‘অভ্যুত্থান প্রচেষ্টাকারী হাফতার যদি লিবিয়ার বৈধ প্রশাসন এবং আমাদের ভাইদের ওপর হামলা অব্যাহত রাখেন তাহলে আমরা তাকে উচিত শিক্ষা দিতে মোটেই দ্বিধা করবো না।’ এরদোগান মস্কোর আলোচনাকে ইতিবাচক বলেও মন্তব্য করেন।

মস্কো আলোচনায় ফাইয়াজ আল-সেরাজ এবং জেনারেল হাফতার সরাসরি আট ঘণ্টা কথা বলেন। যুদ্ধবিরতি চুক্তিতে সই করার জন্য হাফতার মঙ্গলবার সকাল পর্যন্ত সময় নেন কিন্তু তিনি চুক্তিতে সই না করেই লিবিয়া ফিরে ফিরে যান। হাফতারের প্রতি মিশর, সৌদি আরব ও সংযুক্ত আরব আমিরাতের সমর্থন রয়েছে। রাশিয়াও তার প্রতি সমর্থন দিচ্ছে বলে জানা যায়। পার্সটুডে

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech