কাশ্মিরে গণভোট দিতে তৈরি পাকিস্তান : ইমরান খান

  


পিএনএস ডেস্ক: পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান বলেছেন, পাকিস্তানের আজাদ কাশ্মিরের বাসিন্দারা কি পাকিস্তানের সঙ্গে থাকতে চান, নাকি স্বাধীনতা চান, সে ব্যাপারে তাঁদেরকেই সিদ্ধান্ত নিতে দেয়া উচিত। বুধবার জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলেকে একথা বলেন তিনি। একই প্রশ্নে কাশ্মিরে গণভোট দিতেও পাকিস্তান প্রস্তুত বলে ডয়চে ভেলের প্রধান সম্পাদক ইনেস পোলকে জানান পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী ইমরান খান।

গত বছরের আগস্ট মাসে ভারতের নরেন্দ্র মোদি সরকার ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরের বিশেষ মর্যাদা বাতিল করে। এ প্রসঙ্গে ইমরান খান বলেন, ভারতে এখন আরএসএস-এর (রাষ্ট্রীয় স্বেচ্ছাসেবক সংঘ) ‘হিন্দুত্ববাদী’ ভাবাদর্শের জয়জয়কার। তিনি বলেন, আরএসএস জার্মানির নাৎসিদের দ্বারা অনুপ্রাণিত। আর নাৎসিদের জন্ম হয়েছিল সংখ্যালঘুদের প্রতি ঘৃণা থেকে। তেমনিভাবে আরএসএস মতাদর্শও মুসলমানসহ অন্যান্য সংখ্যালঘুদের প্রতি ঘৃণার উপর দাঁড়িয়ে আছে। পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী বলেন, এটা ভারত ও তার প্রতিবেশী দেশগুলোর জন্য একটি ট্র্যাজেডি যে, ভারত এখন আরএসএস দ্বারা পরিচালিত হচ্ছে।

পাকিস্তানের আজাদ কাশ্মির ভ্রমণে বিশ্বের যে কোনো নাগরিককে সেখানে যাওয়ার আহ্বান জানান ইমরান খান। এরপর ভারত নিয়ন্ত্রিত কাশ্মিরে গিয়ে দুই অঞ্চলের তুলনা করে নিজেই সিদ্ধান্ত নেয়ার পরামর্শ দেন তিনি।

ইমরান খান বলেন, হংকংয়ে বিক্ষোভের চেয়ে কাশ্মির ট্র্যাজেডি অনেক বড় ঘটনা হলেও বিশ্ব গণমাধ্যমে তা বেশি গুরুত্ব পাচ্ছে না। এর কারণ হিসেবে তিনি বলেন, দুঃখজনক হলেও সত্য যে, পশ্চিমাদের কাছে বাণিজ্যিক স্বার্থ বেশি গুরুত্বপূর্ণ। ভারত একটি বড় বাজার। তাই কাশ্মিরের প্রায় ৮০ লাখ মানুষ ও ভারতে সংখ্যালঘুদের প্রতি কী ঘটছে, তা নিয়ে পশ্চিমাদের বেশি প্রতিক্রিয়াশীল হতে দেখা যায় না। ভারতে সম্প্রতি পাস হওয়া নাগরিকত্ব সংশোধনী আইন সে দেশের সংখ্যালঘু, বিশেষ করে ২০ কোটি মুসলমানের, পুরোপুরি বিপক্ষে হলেও শুধুমাত্র বাণিজ্যিক কারণে বিশ্ববাসী চুপ রয়েছে। সূত্র : ডয়চে ভেলে

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech