যুক্তরাষ্ট্রের বেশির ভাগ করোনা টেস্ট ‘স্রেফ অপচয়’: বিল গেটস

  

পিএনএস ডেস্ক : যুক্তরাষ্ট্রে করোনাভাইরাসের যেসব টেস্ট হচ্ছে সেগুলোর বেশির ভাগেরই ফল আসতে অনেক দেরি হয়। আর তাই সেগুলোকে ‘স্রেফ অপচয়’ বলে মন্তব্য করেছেন মাইক্রোসফটের প্রতিষ্ঠাতা বিল গেটস। তিনি মনে করেন, মানুষের কাছে তার টেস্টের ফল দ্রুত আসতে হবে, যাতে পজিটিভ হওয়া ব্যক্তি তার চলাফেরার গতিপ্রকৃতি পাল্টাতে পারেন। আর এর ফলে অন্যদের সংক্রমণও কমবে।

মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনবিসিকে দেওয়া এক সাক্ষাৎকারে এসব বলেন মাইক্রোসফটের সাবেক নির্বাহী কর্মকর্তা। খবর সিএনএনের।

বিল গেটস বলেন, ‘সোজা কথা হলো একটা মানুষকে ৪৮ ঘণ্টা পর তার করোনা পরীক্ষার ফলাফল দেওয়ার কোনো মানে হয় না। এভাবে টেস্ট করানোটা একেবারে অপচয় ছাড়া কিছু না। আমরা যেসব টেস্ট করছি এগুলোর বেশির ভাগই আসলে অপচয়।’

যুক্তরাষ্ট্রে করোনা সংক্রমণের শুরুতে টেস্টের ফলাফল আসতে বেশ দেরি হওয়ার প্রবণতা দেখা দেয়। এখন দেশটিতে যেভাবে সংক্রমণ বাড়ছে, সেখানে এই দেরিতে ফল আসা একটা কারণ বলে স্বাস্থ্যবিশেষজ্ঞরা মনে করেন। বিল গেটসের এ অভিযোগ মেনে নিয়েছেন দেশটির ডিপার্টমেন্ট অব হেলথ অ্যান্ড হিউম্যান সার্ভিসেসের সহকারী মন্ত্রী ব্রেত জিওয়া। তিনি বলেন, ‘আমরা যদি ২৪ ঘণ্টার মধ্যে ফলাফল না দিতে পারি, তবে কখনোই তা ভালো কোনো বিষয় হতে পারে না। এটা করা গেলে নিশ্চয়ই ভালো হবে। তবে আমাদের সেই অবস্থান নেই। সেই চেষ্টা আমরা করে যাচ্ছি।’

জিওয়া বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রে অর্ধেক করোনা টেস্ট হচ্ছে বড় বড় বাণিজ্যিক ল্যাবে। গড়ে এসব জায়গা থেকে ফল আসতে চার দিনের বেশি সময় লাগছে। আমাদের এ অবস্থার পরিবর্তন করতে হবে।’

পিএনএস/এসআইআর


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন