এবার চীনকে হুমকি দিলো তাইওয়ান

  

পিএনএস ডেস্ক: বারবার তাইওয়ানের আকাশসীমা লঙ্ঘন করছে চীন। উস্কানিমূলক সামরিক মহড়া করছে। অভিযোগ তাইওয়ানের। চীনের এই কাজ তারা বরদাস্ত করবেন না বলে জানিয়েছেন তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট।

তাইওয়ানের বিমানঘাঁটি পরিদর্শন করতে গিয়ে চীনকে রীতিমতো হুমকি দিলেন প্রেসিডেন্ট সাই ইং-ওয়েন। তিনি বলেছেন, বার বার তাইওয়ানের জমিতে ঢুকে পড়ছে চীনের যুদ্ধবিমান। তাঁর প্রশ্ন, ''আমরা অন্য দেশের যুদ্ধবিমানকে কেন আমাদের আকাশসীমায় ঢুকতে দেব?''

তিনি একটি টুইট করে বলেছেন, ''আমাদের সেনা তাইওয়ানকে রক্ষা করতে সক্ষম। আমরা চীনকে ভয় পাই না। আমরা এই অঞ্চলে শান্তি রক্ষা করে চলব।''

গত শুক্রবার (১৮ সেপ্টেম্বর) তাইওয়ান সীমান্তে সামরিক মহড়া শুরু করে চীন। সেই দিনই এক প্রবীণ মার্কিন কূটনীতিক তাইওয়ানের রাজধানী তাইপেই সফরে এসেছিলেন। ফলে চীনের শক্তিপ্রদর্শন ও আমেরিকার কূটনীতিকের তাইওয়ান সফর একইসঙ্গে হয়।

গত কয়েকদিনে চীনের যুদ্ধবিমানগুলি বার চারেক তাইওয়ানের সীমানা পেরিয়েছে বলে অভিযোগ। তাইওয়ানও তাই নিজেদের যুদ্ধবিমান সীমান্তের কাছে নিয়ে গিয়ে মোতায়েন করেছে।

চীন বরাবরই তাইওয়ানকে নিজেদের দেশের অংশ বলে দাবি করে এসেছে। যদিও তাইওয়ান ১৯৪৯ থেকে স্বাধীন দেশ হিসাবে আছে। তাইওয়ানকে যারা স্বাধীন দেশের মর্যাদা দেয়, কূটনৈতিক সম্পর্ক রাখে, তাদের চীন একেবারেই পছন্দ করে না।

এই পরিস্থিতিতে তাইওয়ানের প্রেসিডেন্ট বিমানঘাঁটি সফরে গিয়েছিলেন। তিনি জানিয়েছেন, নিজেদের আকাশ ও ভূমি রক্ষা করার ব্যাপারে তিনি আত্মবিশ্বাসী।

গত সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) চীনের বিদেশ মন্ত্রকের মুখপাত্র আবার জানিয়েছেন, তাইওয়ান হলো চীনের অংশ। এর নিন্দা করে তাইওয়ানের বিদেশমন্ত্রী বলেছেন, চীন আসলে স্থিতাবস্থা লঙ্নঘ করতে চাইছে। তিনি আন্তর্জাতিক দুনিয়ার কাছে আবেদন জানিয়ে বলেছেন, তারা যেন, চীনের মনোভাবের নিন্দা করে। চীন যা করছে তা ভয়ঙ্কর। তারা শান্তি নষ্ট করতে চাইছে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন