পুতিনের সহযোগীদের ইইউ’র নিষেধাজ্ঞা, পাল্টা হুমকি রাশিয়ার

  

পিএনএস ডেস্ক : নাভালনিকে বিষ দেয়ার জন্য রাশিয়ার প্রেসিডেন্ট পুতিন-ঘনিষ্ঠদের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করেছে ইইউ। পাল্টা ব্যবস্থার হুমকি রাশিয়ার।

বৃহস্পতিবার থেকেই রাশিয়ার সাত উচ্চপদস্থ ব্যক্তি ও একটি সংস্থার বিরুদ্ধে ইইউ-র নিষেধাজ্ঞা চালু হয়েছে। রাশিয়ায় বিরোধী নেতা নাভালনিকে বিষ দিয়ে হত্যার চেষ্টার প্রতিবাদে এই নিষেধাজ্ঞা।

রাশিয়ার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়ার জন্য ইইউ-তে সব চেয়ে সক্রিয় ছিল জার্মানি ও ফ্রান্স। যাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্তা নেয়া হয়েছে, তারা প্রায় সকলেই পুতিনের খুব কাছের লোক বলে পরিচিত। তারা ইইউ-তে ঢুকতে পারবেন না। ইইউ-তে তাদের সম্পত্তি থাকলেও তা বাজেয়াপ্ত হবে।

এই অবস্থায় ক্রেমলিনের মুখপাত্র পেশকভ বলেছেন, ইইউ যে ব্যবস্থা নিয়েছে তাতে রাশিয়ার সঙ্গে তাদের সম্পর্ক খারাপ হবে। এটা বন্ধুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ নয়। রাশিয়াও প্রত্যাঘাত করবে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই লাভরভের হুমকি, রাশিয়াও একই রকমভাবে প্রতিক্রিয়া জানাবে। তার দাবি, জার্মানি কোনো প্রমাণ দেয়নি। আন্তর্জাতিক আইন অনুসারে এই প্রমাণ দেয়া বাধ্যতামূলক। এটাই কূটনৈতিক প্রথা।

যাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হয়েছে, তার মধ্যে আছেন ফেডারেল সিকিউরিটি সার্ভিসের ডিরেক্টর বর্টনিকভ। এছাড়া প্রেসিডেন্টের অফিসের ডেপুটি চিফ অফ স্টাফ সের্গেই কিরিয়েনকো, দুই ডেপুটি প্রতিরক্ষা মন্ত্রী, পুতিনের শেফ প্রিগোঝিনের বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা কার্যকর করেছে ইইউ। এ ছাড়া স্টেট সায়েন্টিফিক রিসার্চ ইনস্টিটিউট ফর অর্গ্যানিক কেমিস্ট্রি ও টেকনলজির বিরুদ্ধেও নিষেধাজ্ঞা জারি করা হয়েছে।

তবে শুধু ইইউ নয়, যুক্তরাজ্যও নাভালনিকে বিষপ্রয়োগ ও লিবিয়ায় হস্তক্ষেপের জন্য রাশিয়ার বিরুদ্ধে নিষেধাজ্ঞা জারি করছে।

দেশটির পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে বিবৃতি দিয়ে জানানো হয়েছে, যুক্তরাজ্যও ইইউ-র মতো ছয় জন ব্যক্তি ও একটি সংস্থার বিরুদ্ধে নিযেধাজ্ঞা জারি করছে।
সূত্র : ডয়চে ভেলে

পিএনএস/এসআইআর


 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন