সপ্তাহে দুবার অপহরণ-গণধর্ষণের শিকার কিশোরী!

  

পিএনএস ডেস্ক : দ্বীপান্বিতা, ১৩ বছরের এক কিশোরী; এক সপ্তাহে দুবার অপহরণে শিকার হয় সে। দুবারই তাকে গণধর্ষণ করা হয়। শেষবার ধর্ষণের শিকার হয়ে বাড়ি পালিয়ে আসার সময় ভুক্তভোগীকে দেখে ফেলে দুই ট্রাক ড্রাইভার। তারাও গণধর্ষণ করে দ্বীপান্বিতাকে।

ছদ্মনামধারী দ্বীপান্বিতার বাড়ি ভারতের মধ্যপ্রদেশের উমরিয়া জেলায়। মোট ১১ ব্যক্তির বিরুদ্ধে সে ধর্ষণের অভিযোগে থানায় মামলা দায়ের করে। সাতজনকে গ্রেপ্তার করেছে স্থানীয় পুলিশ।

ভারতের স্থানীয় গণমাধ্যম দ্য ওয়াল তাদের খবরে জানায়, গত ৪ জানুয়ারি ১৩ বছরের দ্বীপান্বিতাকে অপহরণ করে তার পরিচিত এক যুবক। অপহরণের পর ওই যুবক তার ছয় বন্ধুকে নিয়ে দুই দিন ধরে বার বার সংঘবদ্ধ ধর্ষণ করে। ৫ জানুয়ারি দ্বীপান্বিতাকে ছেড়ে দেওয়া হয়। কাউকে বললে হত্যা করা হবে বলেও হুমকি দেওয়া হয়।

গত ১১ জানুয়ারি ফের দ্বীপান্বিতাকে অপহরণ করে। এবার আগের ধর্ষণকারীদের মধ্যে তিনজন তাকে অপহরণ করে নিয়ে একটি জঙ্গলে ফেলে গণধর্ষণ করে। পরে সুযোগ পেয়ে সেখান থেকে পালিয়ে বাড়ির পথ ধরে দ্বীপান্বিতা। এ সময় তাকে দেখে দুই ট্রাক ড্রাইভার। তারা ও কিশোরীকে জঙ্গলের নিয়ে গণধর্ষণ করে ফেলে রেখে যায়।

দ্য ওয়ালের খবরে আরও বলা হয়, ঘটনার পর কোনো রকম জঙ্গল থেকে বাড়ি ফিরে আসে দ্বীপান্বিতা। গত শুক্রবার থানায় মামলা দায়ের করে তার পরিবার। তার বয়ানের ভিত্তিতে বেশ কয়েকটি দল গঠন করে তদন্ত শুরু করে পুলিশ। যে সাতজন তাকে প্রথমে ধর্ষণ করেছিল, তাদের গ্রেপ্তার করেছে স্থানীয় পুলিশ। দুই ট্রাক ড্রাইভারের খোঁজ চলছে। আশপাশের থানায় খবর দেওয়া হয়েছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন