এশিয়ার ‘মাদক সম্রাট’ আমস্টারডামে গ্রেপ্তার

  

পিএনএস ডেস্ক : বিশ্বের সবচেয়ে বড় মাদক পাচারকারী দলগুলোর একটির প্রধানকে গ্রেপ্তারের দাবি করেছে নেদারল্যান্ডসের পুলিশ।

বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চীনে জন্ম নেওয়া কানাডিয়ান নাগরিক সে চি লপকে বলা হচ্ছে দ্য কোম্পানির প্রধান। পুরো এশিয়ায় ৭ হাজার কোটি ডলারের অবৈধ মাদকের বাজার পরিচালনা করে এই কোম্পানি।

আমস্টারডামের শিপোল বিমানবন্দর থেকে বিশ্বের অন্যতম শীর্ষ এই মাদক ব্যবসায়ীকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। অস্ট্রেলিয়া এখন এই ব্যক্তিকে প্রত্যর্পণের আবেদন করবে।

অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ বিভাগের অনুমান অনুযায়ী, দ্য কোম্পানি স্যাম গোর সিন্ডিকেট নামেও পরিচিত, যা পুরো এশিয়ার মাদক ব্যবসার প্রায় ৭০ ভাগ নিয়ন্ত্রণ করে। ব্যবসার পরিসরের কারণে ৫৬ বছর বয়সী সে চিকে কুখ্যাত মেক্সিকান মাদক ব্যবসায়ী এল চাপো গুজমানের সঙ্গেও তুলনা করা হয়।

শুক্রবার গ্রেপ্তার হওয়ার আগে প্রায় ১০ বছর সে চির গতিবিধির ওপর নজর রাখছিল অস্ট্রেলিয়ার পুলিশ। ২০১৯ সালে সংবাদ সংস্থা রয়টার্স সে চি সম্পর্কে একটি বিশেষ অনুসন্ধানী প্রতিবেদন প্রকাশ করে, যেখানে তাকে এশিয়ার মোস্ট ওয়ান্টেড ব্যক্তি হিসেবে উল্লেখ করা হয়।

সংবাদ সংস্থাটি ওই প্রতিবেদনে জাতিসংঘের তথ্যের বরাত দিয়ে জানায়, শুধু মেথঅ্যামফেটামিন বিক্রি করে ২০১৮ সালে সিন্ডিকেটের আয় হয়েছিল ১ হাজার ৭০০ কোটি ডলার।

রয়টার্সের তথ্য অনুযায়ী, সে চিকে ধরার জন্য পরিচালিত অভিযানে বিভিন্ন দেশের প্রায় ২০টি সংস্থা কাজ করেছে। এই অভিযান অপারেশন কুঙ্গুর নামে পরিচিত।

গত শতকের নব্বইয়ের দশকে যুক্তরাষ্ট্রে মাদক চোরাচালানের অভিযোগে এর আগে ৯ বছর কারাগারে ছিলেন সে চি। অস্ট্রেলিয়ার গণমাধ্যমের ভাষ্য অনুযায়ী, গত দুই দশকে দেশটির পুলিশের সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ পদক্ষেপ সে চিকে আটক করা।

পিএনএস/এসআইআর

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন