মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হত্যা মামলায় এমপি রানার উপস্থিতিতে স্বাক্ষ্যগ্রহণ

  


পিএনএস ডেস্ক: টাঙ্গাইলে মুক্তিযোদ্ধা ফারুক আহমেদ হত্যা মামলায় আদালতে সাবেক সংসদ সদস্য আমানুর রহমান খান রানার উপস্থিতিতে একজনের স্বাক্ষ্যগ্রহণ সম্পন্ন হয়েছে।

বৃহস্পতিবার বেলা সাড়ে ১১টার দিকে টাঙ্গাইলের প্রথম অতিরিক্ত জেলা ও দায়রা জজ রাশেদ কবীর এর বিচারিক আদালতে হাজিরা সম্পন্ন হয়। ফারুক হত্যা মামলায় উচ্চ আদালতে জামিনে মুক্ত হওয়ার পর নিম্ন আদালতে হাজিরা সম্পূর্ণ হয়েছে সাবেক সংসদ সদস্য রানার ।

টাঙ্গাইল জজ কোর্টের অতিরিক্ত পিপি মোহসীন শিকদার ও টাঙ্গাইল আদালতের কোর্ট ইন্সপেক্টর তানভীর আহম্মেদ জানান, মামলার স্বাক্ষী চিকিৎসক মোজাম্মেল হোসেনের স্বাক্ষ্যগ্রহণ শেষে আসামি পক্ষ থেকে তাকে জেরা সম্পন্ন হয়। এনিয়ে এই মামলার ১৮ জনের স্বাক্ষ্য গ্রহণ সম্পন্ন হল। এসময় চিকিৎসক মোজাম্মেল হোসেনের স্বাক্ষ্য গ্রহণ শেষ হয়। পরে আসামি পক্ষ থেকে চিকিৎসককে জেরা করা হয়।

উল্লেখ্য, ২০১৩ সালের ১৮ জানুয়ারি মুক্তিযোদ্ধা ও জেলা আওয়ামী লীগ নেতা ফারুক আহমেদের গুলিবিদ্ধ লাশ তার কলেজ পাড়া এলাকার বাসার কাছ থেকে উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় তার স্ত্রী নাহার আহমেদ বাদী হয়ে টাঙ্গাইল সদর থানায় অজ্ঞাত ব্যক্তিদের আসামি করে মামলা দায়ের করেন। পরে ২০১৬ সালের ৩ ফেব্রুয়ারি তদন্ত শেষে আদালতে অভিযোগপত্র জমা দেয় গোয়েন্দা পুলিশ।

মুক্তিযোদ্ধা ফারুক হত্যা মামলায় সাবেক এমপি আমানুর রহমান খান রানা উচ্চ আদালত থেকে জামিনে রয়েছেন।

এই মামলায় সাবেক এমপি রানা ছাড়াও তার তিন ভাই টাঙ্গাইল পৌরসভার সাবেক মেয়র সহিদুর রহমান খান মুক্তি, ব্যবসায়ী নেতা জাহিদুর রহমান খান কাকন, কেন্দ্রীয় ছাত্রলীগের সাবেক সহ-সভাপতি সানিয়াত খান বাপ্পাসহ ১৪জন আসামি রয়েছে।


পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech