মশা মারতে কোনো সভ্য দেশের হাইকোর্ট আদেশ দেয় না: হাইকোর্ট

  

পিএনএস ডেস্ক: ডেঙ্গু ও চিকুনগুনিয়াসহ অন্যান্য মশাবাহিত রোগ প্রতিরোধে রাজধানীর দুই সিটি করপোরেশন ও মেয়রের নেওয়া পদক্ষেপের বিষয়ে দাখিল করা প্রতিবেদনের ওপর অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন হাইকোর্ট।

এ সময় আদালত বলেন, পৃথিবীর অন্য কোনো সভ্য দেশে হাইকোর্ট মশা মারার জন্য আদেশ দেয় না। এটা কেবল বাংলাদেশেই ঘটে।

সোমবার (২২ জুলাই) বিচারপতি তারিকুল হাকিম ও বিচারপতি সোহরাওয়ার্দীর দ্বৈত বেঞ্চ এক স্বপ্রণোদিত হয়ে এ আদেশ দেন।

হাইকোর্ট বলেন, মেয়ররা বললেন, মশার ঔষধ মেয়াদোত্তীর্ণ হয়ে গেছে। তাহলে এখন তারা কী ঔষধ ছিটাচ্ছে? ঔষধে কি কাজ হয়? মশার ঔষধ ছিটানো হচ্ছে, সেটার কোনো কার্যকারিতা আমরা দেখি না।

যতই আদালতে প্রতিবেদন দেয়া হোক মশা মারছে সিটি করপোরেশন, আদতে কাজের কাজ কিছুই হচ্ছে না উল্লেখ করে হাইকোর্ট বলেন, কেন এমন হচ্ছে? সিটি করপোরেশনের প্রচেষ্টা দৃশ্যমান না। সিটি করপোরেশন নিজেরা সচেতন না হয়ে জনগণকে কীভাবে সচেতন হতে বলে? জনগণ সচেতন আছে, বরং কর্তৃপক্ষই ব্যর্থ।

মানুষের হাসপাতালে যাওয়া বন্ধ হলেই বোঝা যাবে কার্যকরি উদ্যোগ নেয়া হচ্ছে- এমন মন্তব্য করে আদালত প্রশ্ন তোলেন, ডেঙ্গুর কারণে কবে মানুষের হাসপাতালে যাওয়া বন্ধ হবে?

একইসঙ্গে প্রতিবেদনে সিটি করপোরেশনের নেওয়া পদক্ষেপ যথাযথভাবে উঠে না আসায়, দুই সিটির দুই প্রধান স্বাস্থ্য কর্মকর্তাকে তলব করেছেন আদালত।

পাশাপাশি তাদেরকে আগামী বৃহস্পতিবার (২৫ জুলাই) সশরীরে আদালতে হাজির হয়ে ব্যাখ্যা দিতে নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

এর আগে গত ১৪ জুলাই আদালত তার আদেশে ডেঙ্গু ও চিকনগুনিয়া প্রতিরোধে কী পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে, তা জানাতে ঢাকার উত্তর ও দক্ষিণ সিটির মেয়র, নির্বাহী কর্মকর্তা, স্বাস্থ্য সচিব, স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের সচিব, স্বাস্থ্য অধিদফতরের মহাপরিচালককে জানাতে নির্দেশ দেন।

একইসঙ্গে নাগরিকদের ডেঙ্গু, চিকুনগুনিয়াসহ এ ধরনের রোগে আক্রান্ত হওয়া বন্ধ করতে এবং এডিস মশা নির্মূলে বিবাদীদের নিষ্ক্রিয়তা কেন আইনগত কর্তৃত্ব বহির্ভূত হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছিলেন আদালত।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech