টাঙ্গাইলে শিশুকে অপহরণের পর হত্যায় দুইজনের যাবজ্জীবন

  

পিএনএস ডেস্ক : টাঙ্গাইলের ভূঞাপুরে এক শিশুকে অপহরণ ও হত্যা মামলায় ২ জনকে যাবজ্জীবন (আমৃত্যু) কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। একই সঙ্গে এক লাখ টাকা করে জরিমানা এবং ২ জনকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেয়া হয়েছে।

টাঙ্গাইলের নারী ও শিশু নির্যাতন দমন ট্রাইব্যুনালের বিচারক খালেদা ইয়াসমিন মঙ্গলবার দুপুরে এই রায় ঘোষণা করেন বলে টাঙ্গাইলের কোর্ট ইন্সপেক্টর তানবীর আহম্মেদ নিশ্চিত করেছেন।

দণ্ডিত ব্যক্তিরা হলেন- ঘাটাইল উপজেলার রামপুর এলাকার মো. শাহজাহানের ছেলে জাহাঙ্গীর হোসেন (৩০), গোপালপুর উপজেলার কামাক্ষা বাড়ী এলাকার হিরালাল আর্য্যর ছেলে গৌতম চন্দ্র আর্য্য (৩০) এবং অপর দুই আসামি অপ্রাপ্তবয়স্ক বিধায় তাদেরকে ১০ বছর করে কারাদণ্ড দেওয়া হয়।

তারা হলেন- ঘাটাইল উপজেলার নিয়ামতপুর কাজিপুর এলাকার মো. আব্দুল হালিমের ছেলে মো. হাসান আলী (১৭) ও ভূঞাপুর উপজেলার রুহুলী পশ্চিম পাড়া এলাকার ফজলুল হকের ছেলে মো. সোহেল (১৭)।

রাষ্ট্রপক্ষের নিয়মিত আইনজীবী ছিলেন এপিপি শাহানশাহ মিন্টু। তিনি জানান, ভূঞাপুর উপজেলার রুহুলী গ্রামের মাজেদা বেগমের নাতি মাসুদ রানা সয়ন ২০১৩ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মাটিকাটা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে যায়।

পরে দণ্ডিত আসামিরা শিশু সয়নকে মোটরসাইকেলে করে অপহরণ করে নিয়ে যায়। পরবর্তীতে আসামিরা শিশুটির পরিবারের কাছে ৫ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে।

মুক্তিপণের টাকা না পেয়ে শিশু মাসুদ রানা সয়নকে হত্যা করে।

এ ঘটনার প্রেক্ষিতে ২০১৩ সালের ৩ অক্টোবর শিশুটির নানি মাজেদা বেগম বাদী হয়ে ভূঞাপুর থানায় অজ্ঞাত নামায় একটি মামলা দায়ের করেন।

এই ঘটনার প্রেক্ষিতে এ মামলায় গৌতম চন্দ্র আর্য্য, হাসান আলী ও মো. সোহেল আদালতে ১৬৪ ধারায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি প্রদান করে।

আসামিপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন শামীম চৌধুরী দয়াল ও খুকু রানী দাস। আসামিপক্ষের আইনজীবীরা বলেন, আদালতের রায়ে আমরা সন্তুষ্ট নই। এ মামলায় আমরা উচ্চ আদালতে আপিল করবো।

পিএনএস/এসআইআর

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন