স্বামীহত্যার দায়ে নারীর যাবজ্জীবন কারাদণ্ড

  

পিএনএস ডেস্ক : সাতক্ষীরার আশাশুনি উপজেলায় স্বামীকে হত্যার দায়ে মেহেরুন্নেছা (৪০) নামের এক নারীকে যাবজ্জীবন সশ্রম কারাদণ্ড দিয়েছেন আদালত। এর পাশাপাশি তাকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা, অনাদায়ে আরও দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।

রোববার (২৮ ফেব্রুয়ারি) বিকেল সাড়ে ৪টার দিকে এ রায় ঘোষণা করেন সাতক্ষীরার সিনিয়র জেলা ও দায়রা জজ শেখ মফিজুর রহমান।

সাতক্ষীরা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আব্দুল লতিফ এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

মেহেরুন্নেছা আশাশুনির সরাফপুর গ্রামের জাকির হোসেন সরদার ওরফে ছোট বাবুর স্ত্রী। তিনি পলাতক আছেন।

মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, ২০০৮ সালে তালাকপ্রাপ্ত মেহেরুন্নেছার সঙ্গে মাছ ব্যবসায়ী জাকির হোসেনের বিয়ে হয়। দ্বিতীয় বিয়ের পরও মেহেরুন্নেছা মোবাইল ফোনে সাবেক স্বামীর সঙ্গে কথা বলতেন। এ নিয়ে মেহেরুন্নছা ও জাকিরের মধ্যে বিরোধ চলছিল। আগের স্বামীর সঙ্গে কথা বলতে নিষেধ করায় স্বামী ও শ্বাশুড়িকে খুন করার হুমকি দেন মেহেরুন্নেছা। ২০১৪ সালের ৩ অক্টোবর বিকেল সাড়ে ৫টার দিকে ফাঁকা বাড়িতে খাটের ওপর শুয়ে থাকা স্বামীকে কুড়াল দিয়ে কুপিয়ে হত্যা করেন মেহেরুন্নেছা। স্থানীয়রা তাকে আটক করে পুলিশে সোপর্দ করে। এ ঘটনায় নিহতের ভাই আজাহারুল সরদার বাদী হয়ে হত্যা মামলা দায়ের করেন।

মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশাশুনি থানার উপ-পরিদর্শক মনোজ কুমার নন্দী ওই বছরের ১৯ ডিসেম্বর মেহেরুন্নেছার নাম উল্লেখ করে আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন। জামিনে মুক্তি পেয়ে মেহেরুন্নেছা পালিয়ে যান।

আসামিপক্ষে মামলা পরিচালনা করেন অ্যাডভোকেট জিএম আবু বক্কর ছিদ্দিক। রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন সাতক্ষীরা জেলা ও দায়রা জজ আদালতের পাবলিক প্রসিকিউটর (পিপি) অ্যাডভোকেট আব্দুল লতিফ।

পিএনএস/এসআইআর

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন