নাইকো মামলার চার্জ গঠন শুনানি ১৮ মার্চ

  

পিএনএস ডেস্ক: এক যুগেরও বেশি সময় ধরে চলা বিএনপি চেয়ারপারসন ও সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার বিরুদ্ধে কানাডিয়ান বহুজাতিক তেল-গ্যাস কোম্পানি নাইকো দুর্নীতি মামলার অভিযোগ গঠন শুনানির জন্য আগামী ১৮ মার্চ দিন ধার্য করেছেন আদালত। এ নিয়ে বহুল আলোচিত এ মামলার অভিযোগ গঠন শুনানি ৩৬তম বারের মতো পেছানো হলো।

মঙ্গলবার (০২ মার্চ) বেগম জিয়ার পক্ষে তাঁর আইনজীবী অভিযোগ গঠনের শুনানি করেন। তবে শুনানি শেষ না হওয়ায় এবং বেগম জিয়া শারীরিকভাবে অসুস্থত থাকায় তাঁর আইনজীবীদের করা সময় আবেদন মঞ্জুর করে কেরানীগঞ্জে ঢাকা কেন্দ্রীয় কারাগারের নবনির্মিত ২ নম্বর ভবনে স্থাপিত অস্থায়ী ৯ নম্বর বিশেষ জজ শেখ হাফিজুর রহমানের আদালত নতুন এ তারিখ ধার্য করেন।

গেল ১৬ ফেব্রুয়ারিও একই আদালত শুনানি দিন পিছিয়ে ২ মার্চ নতুন দিন ধার্য করেন।

এদিন আদালতে বেগম জিয়ার পক্ষে সময় আবেদনের শুনানি করেন আইনজীবী জিয়া উদ্দিন জিয়া। শুনানি শেষে তিনি নিজেই গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

উল্লেখ্য, ২০০৭ সালের ৯ ডিসেম্বর তেজগাঁও থানায় কানাডার কোম্পানি নাইকোর সঙ্গে অস্বচ্ছ চুক্তির মাধ্যমে রাষ্ট্রের বিপুল আর্থিক ক্ষতিসাধন ও দুর্নীতির অভিযোগে খালেদা জিয়াসহ ৫ জনের বিরুদ্ধে দুদকের সহকারী পরিচালক মুহাম্মদ মাহবুবুল আলম নাইকো দুর্নীতি মামলাটি করেন।

পরে ২০০৮ সালের ৫ মে এ মামলায় খালেদা জিয়াসহ ১১ জনের বিরুদ্ধে ঢাকার মুখ্য মহানগর হাকিমের আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন দুদকের সহকারী পরিচালক এস এম সাহেদুর রহমান।

অভিযোগপত্রে প্রায় ১৩ হাজার ৭৭৭ কোটি টাকার রাষ্ট্রীয় ক্ষতির অভিযোগ আনা হয়।

খালেদা জিয়ার ছাড়াও এ মামলার অন্য আসামিদের মধ্যে আছেন- সাবেক আইনমন্ত্রী ব্যারিস্টার মওদুদ আহমদ, সাবেক জ্বালানি প্রতিমন্ত্রী এ কে এম মোশাররফ হোসেন, সাবেক মুখ্য সচিব কামাল উদ্দিন সিদ্দিকী, জ্বালানি ও খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সাবেক ভারপ্রাপ্ত সচিব খন্দকার শহীদুল ইসলাম, সাবেক সিনিয়র সহকারী সচিব সি এম ইউছুফ হোসাইন, বাপেক্সের সাবেক মহাব্যবস্থাপক মীর ময়নুল হক, সাবেক সচিব মো. শফিউর রহমান, ব্যবসায়ী গিয়াসউদ্দিন আল মামুন, ঢাকা ক্লাবের সাবেক সভাপতি সেলিম ভূঁইয়া ও নাইকোর দক্ষিণ এশিয়াবিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট কাশেম শরীফ।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন