বন্ধুর জন্য অন্ধ সাজা

  



পিএনএস ডেস্ক: শিক্ষার আলো নিতে এসেছিল সিদ্দিকুর রহমান। হাতে মশাল ছিল না। মনের মশাল জ্বালিয়ে সহপাঠীদের কাতারে দাঁড়িয়ে জীবনের অধিকার আদায়ে রাস্তায় নেমেছিল। রাষ্ট্র সে কথা শোনার ধৈর্য রাখেনি।

পুলিশের টিয়ার শেলে চোখের আলো নিভে যায় তিতুমীর কলেজের ছাত্র সিদ্দিকুরের। টিয়ার শেলের ধোঁয়ায় যে আঁধার নেমেছে তার জীবনে, সে আঁধার ঘুচবে কিনা, তা অজানা।

চোখে কালো চশমা পরে অন্যের কাঁধে ভর করে শুক্রবার বিমানবন্দরে পা রাখেন সিদ্দিকুর। যেন অসীম সাগরে জীবনতরী ভাসিয়ে দিয়ে হাতড়ে ফিরছে শিক্ষার আলোর এই দিশারী। সিদ্দিকুরকে অভ্যর্থনা জানাতে গিয়েছিল ওর বন্ধুরা। পৌনে পাঁচটায় দেখা মিললেও বন্ধুদের অপেক্ষা ছিল দুপুরের পর থেকেই।

কালো কাপড়ে চোখ বেঁধে সিদ্দিকুরকে অভ্যর্থনা জানায় বন্ধুরা। দৃষ্টিশক্তি হারানো সিদ্দিকুরের প্রতি সমবেদনা আর সহমর্মিতা জানানোর জন্যই বন্ধুদের এমন অন্ধ সাজা।

ওই আন্দোলনে অংশ নিয়েছিলেন ঢাকা কলেজের ছাত্র শাহিনুর রহমান। আজ দুপুরেই এসেছেন সিদ্দিকুরের দেখা পেতে। কালো কাপড়ে চোখ বেঁধে সিদ্দিকুরের জন্য অপেক্ষারত এই শিক্ষার্থী বলেন, ‘ওর জন্য মনের যে কষ্ট, তা তো ভাষায় প্রকাশ করা যায় না। একজন ভালো মানুষ চোখে দেখতে পাচ্ছে না, ভাবতেই গা শিউরে ওঠে! ওর ভেতরের আলো আর বাইরে আসতে পারছে না। ক্ষণিকের জন্য আমরাও কালো কাপড় বেঁধে দুনিয়ার আলো থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখলাম। আমাদের কর্মসূচি সিদ্দিকুরের জন্য যেমন সমবেদনা জানানো, তেমনি রাষ্ট্রের জুলুম, নির্যাতনের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ, ক্ষোভের প্রকাশ।’

শিক্ষা ব্যবস্থায় অন্ধকার বিরাজ করছে বলে মন্তব্য করে সিদ্দিকুরের আরেক বন্ধু শেখ ফরিদ বলেন, ‘শিক্ষার আলো নিভে যাচ্ছে বলেই পুলিশ এমন শান্তিপ্রিয় আন্দোলনে নিপীড়ন চালিয়েছিল। আমরা আজ কালো কাপড় বেঁধে সেই অন্যায়, জুলুমের প্রতিবাদ করছি।’

অবশ্য বন্ধুদের এমন আবেগ আর ভালোবাসার প্রতি সম্মান জানিয়েছেন দৃষ্টিশক্তি হারানো সিদ্দিকুরও। বিমানবন্দরে নেমে সাংবাদিকদের বলেন ‘আমি চোখের আলো হারিয়েছি। কিন্তু আমার চোখের বিনিময়ে বন্ধুদের জীবনে শিক্ষার আলো ফিরে আসুক।’

সিদ্দিকুর বলেন, ‘শিক্ষার জন্য আমার এই ত্যাগের বিনিময়ে বঞ্চিত সকলকে শিক্ষার আলোয় আলোকিত করা হোক- এটাই আমার চাওয়া।’ শুক্রবার বিকেল ৩টা ২০ মিনিটে হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে অবতরণ করেন তিনি। বিকেল ৪টা ৫০ মিনিটের দিকে তিনি বিমানবন্দর থেকে বের হয়ে আসেন।

প্রসঙ্গত, গত ২০ জুলাই সকালে শাহবাগ জাতীয় জাদুঘরের সামনে নীতিমালা প্রণয়নসহ সাত দফা দাবিতে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের অধিভুক্ত সাতটি কলেজের শিক্ষার্থীরা মানববন্ধন ও অবস্থান কর্মসূচি পালন করতে যান। আন্দোলনরত শিক্ষার্থীরা নির্যাতনের শিকার হন পুলিশের। পুলিশের টিয়ার শেলের আঘাতে দৃষ্টি হারান সিদ্দিকুর রহমান।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech