দুই দিনের বৃষ্টিতে স্বস্তিতে নেই চট্টগ্রামের নগরজীবন

  

পিএনএস ডেস্ক:দুই দিনের টানা বৃষ্টিতে বিষিয়ে উঠেছে বন্দরনগরী চট্টগ্রামের জনজীবন। বৃষ্টিতে নগরীর এক তৃতীয়াংশ এলাকা এরই মধ্যে ডুবে গেছে। হাটু ও কোমর পানিতে ডুবে গেছে সড়ক, বাসাবাড়ি ও হাসপাতাল। ভোগান্তিতে পড়ছে কর্মজীবি, শিক্ষার্থী ও রোগীরা।

অমাবস্যা ঘিরে মৌসুমি বায়ু সক্রিয় হয়ে উঠায় বৃহস্পতিবার থেকে চট্টগ্রামে টানা বৃষ্টি শুরু হয়। থেমে থেমে কয়েক দফা ভারী বৃষ্টি হওয়ায় চট্টগ্রামের নিচু এলাকা ডুবে যায়। এর আগে জুলাইয়ের মাঝামাঝি সময়ে ভরা পূর্নিমায় টানা বর্ষণে ৪ থেকে ৫ দিন জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় চট্টগ্রাম মহানগরজুড়ে।

চট্টগ্রামের পতেঙ্গা আবহাওয়া অধিদপ্তর সূত্র জানিয়েছেন, শনিবার সকাল নয়টা পর্যন্ত আগের ২৪ ঘণ্টায় ৮৩ দশমিক ৬ মিলিমিটার বৃষ্টিপাত রেকর্ড করা হয়েছে। আগামি ২৪ ঘন্টায় সম্ভাবনা রয়েছে আরও ভারী বৃষ্টিপাতের।

বৃহস্পতিবার রাত থেকে শুরু হওয়া এ বৃষ্টিতে নগরীর বাকলিয়া, আগ্রাবাদ, চকবাজার কাপাসগোলা, ষোলশহর, মুরাদপুর, বহদ্দারহাট, মোহরা, আগ্রাবাদ, হালিশহরসহ বিভিন্ন এলাকায় হাঁটু থেকে কোমর পানি জমে গেছে। এসব এলাকায় যানবাহন চলাচলে দীর্ঘ যানজটের সৃষ্টি হচ্ছে।

তাতে চরম দুর্ভোগের শিকার হচ্ছে স্থানীয় লোকজন। চকবাজার, কাপাসগোলা ও বহদ্দারহাটের বিভিন্ন দোকান ও বাসায় ঢুকে পড়েছে বৃষ্টির পানি।

বাদুরতলার ব্যবসায়ী আমিনুল হক জানান, বৃষ্টির সঙ্গে পাল্লা দিয়ে তাদের বাসায় পানি ঢুকছে আর নামছে। একটু ভারী বৃষ্টি হলেই ঘরে হাটু পানি উঠে যায়। বৃষ্টি থামলে পানি নেমে যায়। এভাবে দুই দিনে অন্তত ৫/৬বার পানি ঢুকেছে বলে তিনি জানান।

একই অবস্থা নগরের বাকলিয়া ডিসি রোড ও কাপাসগোলা এলাকার। বিভিন্ন বাসা ও রাস্তার পাশের দোকানগুলোতে কয়েক দফা পানি ঢুকেছে। স্থানীয় দোকানদার হাবিবুর রহমান বলেন, কাল থেকে কয়েকবার দোকান পরিষ্কার করেছি। বারবার পানি ঢুকে অনেক জিনিসপত্র নষ্ট হয়ে যাচ্ছে।



পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech