সীমাহীন কষ্টে বানভাসী মানুষ

  

পিএনএস (মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান) : বৃষ্টি হচ্ছে, পানি বাড়ছে। ভারত থেকে ধেয়ে আসছে পানি।নদ-নদীগুলোর পানি বিপদসীমার উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে।দেশের ২১টি জেলা বন্যাকবলিত হয়েছে। ত্রাণের অভাবে বানভাসী মানুষ নিদারুণ কষ্টে জীবন যাপন করছে।

২১টি জেলার ৪ লাখ মানুষ বন্যায় ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এসব জেলার এক লাখ ৭২ হাজার ২১৭ হেক্টর জমির ফসলহানি ঘটেছে।বন্যায় এ পর্যন্ত ১৬০ জন প্রাণ হারিছে। প্রাণহানির সংখ্যা আরো বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা করা হচ্ছে।

বন্যা আরো নতুন নতুন এলাকা প্লাবিত করতে পারে বলে আশঙ্কা করছেন পানি বিশেষজ্ঞরা। এমনকি রাজধানী ঢাকায়ও বন্যা হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। বিশেষ করে নিম্নাঞ্চল প্লাবিত হতে পারে। সঙ্গে আরো কয়েকটি জেলায় নতুন করে বন্যা হতে পারে।

বন্যাকবলিত মানুষ আবাসনের পাশাপাশি খাবার ও বিশুদ্ধ পানিসংকটে ভুগছে। প্রয়োজনীয় ত্রাণের অভাবে বানবাসী মানুষ চরম কষ্টে আছে। নলকূপগুলো ডুবে যাওয়ায় সুপেয় পানিসংকট চরমে। পানির মধ্যে বসবাস করলেও বিশুদ্ধ পানি না পেয়ে বাধ্য হয়ে অনেকে বন্যার পানি পান করছে।

গবাদিপশু তাদের জন্য বড় সমস্যা। বিভিন্ন এলাকার বানভাসী মানুষ পশুখাদ্য নিয়ে বিপাকে পড়েছে। খাদ্যের পাশাপাশি পশু রাখার জায়গা সংকটে কৃষকরা চোখে সরষেফুল দেখছে। যেখানে নিজেদের মাথা গোঁজার ঠাঁই নেই, সেখানে পশু নিয়ে তাদের সমস্যার অন্ত নেই।

প্রয়োজনীয় বিশুদ্ধ পানি ও শুকনো খাবারের অভাবে কোনো কোনো এলাকায় কচুঘেচু ও অনিরাপদ পানি খেয়ে মানুষ কষ্টকর জীবন যাপন করছে। এতে পেটের পীড়ায় আক্রান্তের সংখ্যা বাড়ছে। এসব এলাকায় পর্যাপ্ত শুকনো খাবার, বিশুদ্ধ পানি ও পানি শোধনকারী ট্যাবলেট পাঠানো জরুরি।

বন্যাদুর্গত এলাকায় চিঁড়া-মুড়ি-গুড়ের পাশাপাশি শিশুখাদ্য, স্যালাইন, দেশলাই, মোমবাতি ত্রাণের মধ্যে রাখা উচিত। পানিবৃদ্ধি অব্যাহত থাকায় অনেক এলাকায় প্রাকৃতিক ডাকে সাড়া দেয়ার মতো জায়গাও শুকনো নেই। এমনকি মানুষ মারা গেলে মাটি দেয়ার জায়গা পাওয়া যাচ্ছে না।

ফসল হারিয়ে সামর্য্ বান কৃষকরাও বিপাকে পড়েছেন। বন্যাকবলিত এলাকায় প্রায় দুই হাজার ত্রাণ শিবির খোলা হয়েছে। যেখানে সবার ঠাঁই মিলছে না। ত্রাণসংকট চরম আকার ধারণ করেছে। একটু খাবারের জন্য বানভাসী মানুষ দ্বিবিদিক ঘুরে বেড়াচ্ছে।

চোখে না দেখলে বানভাসী মানুষের কষ্ট বোঝা কঠিন। বন্যাদুর্গত এলাকায় খাবার সংকট মোকাবিলায় সমন্বিত উদ্যোগ গ্রহণ জরুরি। দলমতের ঊর্ধ্বে উঠে উদ্ভূত সমস্যা সমাধানে সবাইকে সহযোগিতার হাত প্রসারিত করা একান্ত প্রয়োজন। সামর্থ অনুয়ায়ী সবাইকে বানভাসী দুর্গত মানুষের পাশে দাঁড়ানো সময়ের দাবি।

লেখক : সাধারণ সম্পাদক- ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়ন
ই-মেইল : jalam_prodhan72@yahoo.com

পিএনএস/জে এ মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech