ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের একনেকে অনুমোদন

  


পিএনএস ডেস্ক: ৩৪ হাজার টাকা ব্যয়ে ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়েসহ আরও পাঁচটি প্রকল্পের অনুমোদন দিয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটি (একনেক)।

মঙ্গলবার রাজধানীর শেরেবাংলা নগরে এনইসি সম্মেলন কক্ষে একনেক চেয়ারপারসন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সভাপতিত্বে একনেক সভায় প্রকল্পগুলো অনুমোদন দেওয়া হয়।

বৈঠক শেষে প্রকল্পগুলো সম্পর্কে ব্রিফিংয়ে পরিকল্পনামন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল জানান, ‘আজকের উপস্থাপিত পাঁচটি (নতুন) প্রকল্পের মোট ব্যয় সরকারি অর্থায়ন থেকে করা হবে ১২ হাজার ৪০২ কোটি ৬৫ লাখ টাকা এবং প্রকল্প সাহায্য ২২ হাজার ১৬৪ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। ’

এ সময় আরও উপস্থিত ছিলেন পরিকল্পনা সচিব জিয়াউল ইসলাম, সাধারণ অর্থনৈতিক বিভাগের সদস্য ড. শামসুল ইসলাম প্রমুখ।

উল্লেখ্য, ঢাকা-আশুলিয়া এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে উড়ালসড়কটি হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর সড়ক থেকে শুরু হয়ে ইপিজেড-চন্দ্রা ইন্টারসেকশনে গিয়ে শেষ হবে। এক্সপ্রেসওয়েটির মোট দৈর্ঘ্য হবে ২৪ কিলোমিটার। এর উভয় পাশে চার লেনের ১৪ দশমিক ২৮ কিলোমিটার সংযোগ সড়কও নির্মাণ হবে।

জানা গেছে, এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে ঢাকা ও এর পাশের আশুলিয়া অংশের যানজট নিরসন হবে অনেকাংশে। এ ছাড়া ঢাকার সঙ্গে দেশের উত্তর ও পশ্চিমের অন্তত ৩০টি জেলার যোগাযোগব্যবস্থা অত্যন্ত সহজ হবে। উত্তরবঙ্গগামী যাত্রীদের ঢাকা ছাড়ার জন্য গাবতলী, সাভার ও চন্দ্রায় ঘণ্টার পর ঘণ্টা যানজটে বসে থাকার প্রয়োজন হবে না। অতি অল্প সময়ের মধ্যেই ঢাকা থেকে চন্দ্রা পৌঁছে যাবে এসব গাড়ি।

শুধু তাই নয়, এ প্রকল্পটি বাস্তবায়ন হলে যানজটমুক্ত হবে আবদুল্লাহপুর-আশুলিয়া-বাইপাইল-চন্দ্রা এলাকাও; যার সুফল ভোগ করতে পারবেন রাজধানীবাসীও। প্রকল্পটির নির্মাণ-পরবর্তী পাঁচ বছরের জন্য এটি পরিচালনা ও রক্ষণাবেক্ষণের দায়িত্বে থাকবে চায়না ন্যাশনাল মেশিনারি ইমপোর্ট-এক্সপোর্ট করপোরেশন (সিএমসি)। চুক্তির শর্তানুযায়ী টোল আদায়ের মাধ্যমে তারা তাদের বিনিয়োগকৃত অর্থ তুলে নেবে।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech