কৃষি ব্যবস্থার উন্নয়নের কারণেই বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণ: ভূমিমন্ত্রী

  

পিএনএস : ভাষাসৈনিক, বীর মুক্তিযোদ্ধা ভূমিমন্ত্রী শামসুর রহমান শরীফ এম.পি. বলেছেন, বাংলাদেশের সাড়ে ষোল কোটি মানুষের মধ্যে অভুক্ত থাকে এমন একটি মানুষও খুঁজে পাওয়া যাবে না। এ কৃতিত্ব মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার। মন্ত্রী আরও বলেন, কৃষি ব্যবস্থার উন্নয়নের কারণেই বাংলাদেশ খাদ্যে স্বয়ংসম্পূর্ণতা অর্জনে অনেক দুর এগিয়েছে। তিনি বলেন, পুষ্টিভিত্তিক খাদ্যের অভাব দুরীকরণে গবেষণা প্রতিষ্ঠানগুলো কাজ করে যাচ্ছে।

আজ পাবনা ঈশ্বরদী উপজেলার ডাল গবেষণা কেন্দ্র ও আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের অভ্যন্তরে সবুজ কুঁড়ি কিন্ডার গার্টেন ও আরএআরএস হাই স্কুল এর বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতা ও কৃতি ছাত্রছাত্রীদের মাঝে ক্রেস্ট বিতরণ ও সম্বর্ধনা প্রদান অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে ভূমিমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

ভূমিমন্ত্রী আরও বলেন, প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনার নিরলস প্রচেষ্টায় দেশে অব্যাহত উন্নয়ন ঘটে চলেছে। প্রধানমন্ত্রীর রাজনৈতিক দুরদর্শীতা ও দক্ষভাবে রাষ্ট্র পরিচালনার সুফল জনগণ পেতে শুরু করেছে। যোগাযোগ ব্যবস্থা ও বিদ্যুৎ ব্যবস্থার অভূতপূর্ব উন্নয়ন ঘটেছে। নিরন্ন মানুষের জন্য অন্ন, পড়নের কাপড়, শতভাগ শিশুর শিক্ষা, চিকিৎসা ও মাথা গোঁজার ঠাই নিশ্চিত করতে জননেত্রী শেখ হাসিনার সরকার আন্তরিকতার সাথে কাজ করে যাচ্ছে।

তিনি বলেন, জননেত্রী শেখ হাসিনা মায়ের মমতা, বোনের সোহাগ দিয়ে আত্মপ্রত্যয়ী করে দেশের প্রতিটি মানুষকে সামনের দিকে এগিয়ে নিচ্ছেন। তিনি বলেন, আমাদের আশা ভরসার প্রতীক মাননীয় প্রধানমন্ত্রী জননেত্রী শেখ হাসিনা। তাঁরই নেতৃত্বে আমরা এদেশের মানুষের দুঃখ, কষ্ট ভুলিয়ে দিয়ে ২০৪১ সালে বাংলাদেশকে ফ্রান্স, জার্মানী, আমেরিকা, জাপানের মতো উন্নত দেশের কাতারে নিয়ে যেতে চাই। মন্ত্রী জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের সোনার বাংলা তথা জননেত্রী শেখ হাসিনার রূপকল্প বাস্তবায়নে সকলের আন্তরিক সহযোগিতা চান।

মন্ত্রী ক্রীড়াবিদ ও ছাত্রছাত্রীদের উদ্দেশে বলেন, নিজের জীবন গড়লেই পরিবার গড়া হবে, পরিবার গড়া হলেই সমাজ ও উন্নত দেশ গড়া হবে, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা গড়া স্বার্থক হবে। মন্ত্রী ছাত্রছাত্রীদের মনোযোগ সহকারে পড়াশুনা করে শতভাগ জিপিএ-৫ প্রাপ্তি নিশ্চিত করার উপদেশ দেন। পরে মন্ত্রী বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের ক্রীড়ানৈপুণ্য ও ডিসপ্লে উপভোগ করেন এবং ডাল গবেষণা কেন্দ্রের মাঠে রোপিত বীজের চারা ঘুরে দেখেন। মন্ত্রী জিপিএ-৫ প্রাপ্ত কৃতি ছাত্রছাত্রীদের মাঝে ক্রেস্ট ও সনদ বিতরণ করেন।

ডাল গবেষণা কেন্দ্র ও আঞ্চলিক কৃষি গবেষণা কেন্দ্রের পরিচালক ড. মুহাম্মদ হোসেন এর সভাপতিত্বে এসময় অন্যান্যের মধ্যে বাংলাদেশ কৃষি গবেষণা ইনস্টিটিউট এর সাবেক সিএসও ড. মো. শাহাবুদ্দিন খান, প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ড. মো. ওমর আলী, পাবনা জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম সম্পাদক বশির আহমেদ বকুল ও সবুজ কুঁড়ি কিন্ডারগার্টেন ও আরএসআরএস হাইস্কুলের অধ্যক্ষ কবীর আলী বক্তব্য রাখেন।

পরে মন্ত্রী শহরের অরণকোলায় এম.এ. গফুর মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয় ও চরমিরকামারীর ভাষা শহীদ বিদ্যানিকেতন এর বার্ষিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতার উদ্বোধন ঘোষণা করেন এবং ছাত্রছাত্রীদের মাঝে পুরস্কার বিতরণ করেন। মকলেছুর রহমান মিন্টুর সভাপতিত্বে এসময় অন্যান্যের মধ্যে এম.এ. গফুর মেমোরিয়াল উচ্চ বিদ্যালয়ের সভাপতি আবুল হাশেম, পাবনা জেলা পরিষদের সদস্য শফিউল আলম বিশ^াস, ভাষা শহীদ বিদ্যা নিকেতনের প্রধান শিক্ষক মোক্তার হোসেন বক্তব্য রাখেন।

পিএনএস/মোঃ শ্যামল ইসলাম রাসেল

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech