শৈত্যপ্রবাহ চলছে, নিম্ন আয়ের মানুষের কষ্ট বাড়ছে

  


পিএনএস (মোহাম্মদ জাহাঙ্গীর আলম প্রধান) : শৈত্যপ্রবাহ চলছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চলে শীত ঝেঁকে বসেছে। তীব্র শীতে জনজীবন অতিষ্ঠ হওয়ার উপক্রম।শীতের কবলে নাগরিক সমাজের জীবনযাত্রা ব্যাহত হচ্ছে। গরম কাপড়ের অভাবে নিম্ন আয়ের মানুষ কষ্ট পাচ্ছেন।বিবেকের তাড়না ও সামাজিক দায় থেকে উদ্বুদ্ধ হয়ে শীতে কষ্টে থাকা মানুষগুলোর পাশে দাঁড়ানো আমার, আপনার নৈতিক দায়িত্ব।

খবরে প্রকাশ, মাদারীপুর, মৌলভীবাজার, দিনাজপুর, নীলফামারী, পঞ্চগড়, লালমনিরহাট, কুড়িগ্রাম, যশোর, চুয়াডাঙ্গা এবং বরিশাল অঞ্চলের উপর দিয়ে মৃদু থেকে মাঝারী ধরনের শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে।পৌষের শেষ দিন আজ। মাঘের প্রথম সাপ্তাহজুড়ে এ শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত থাকতে পারে বলে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে।

শীতের প্রকোপ বৃদ্ধি পাওয়ায় জনজীবন স্থবির হয়ে পড়েছে। কুয়াশার কারণে রাতে যানবাহন চলাচল ব্যাহত হচ্ছে। ঘন কুয়াশার কারণে রাতে বন্ধ রাখতে হচ্ছে ফেরি চলাচল। এত যাত্রী সাধারণের দুর্ভোগ চরমে পৌঁছছে।শীত ঝেঁকে বসায় নিম্ন আয়ের মানুষ দিশেহারা। তারা শীত নিবারণে আগুন জ্বালিয়ে শরীর গরম রাখার চেষ্টা করছে।

শীতের কারণে রেল স্টেশন, বাস ও লঞ্চ টার্মিনালে থাকা ভাসমান মানুষের কষ্ট সচেতন জনগোষ্ঠীর দৃষ্টি কাড়ছে। কষ্টে আছে নগরীর ফুটপাত ও বস্তিতে থাকা নিম্ন আয়ের মানুষও। শীতের কাপড়ের অভাবে তারা ঝড়োসড়ো হয়ে থাকছে। তাদের গরম কাপড়ের অভাব সহজেই যে কারো দৃষ্টিতে পড়ছে।

তীব্র শীতে শিশু ও বৃদ্ধদের কষ্ট চরমে।নিম্ন আয়ের মানুষের যেখানে দুবেলা খাবার জোগানো কঠিন, সেখানে গরম কাপড় কেনার বাড়তি খরচ জোগানো তাদের জন্য আকাশকুসুম কল্পনা বৈকি। যাদের শীতের একাধিক বাহারি পোশাক রয়েছে, রয়েছে প্রাচুর্য- তারা শীতার্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোর এখনই সময়।

শীতে কষ্টে থাকা মানুষের পাশে দাঁড়ানো সময়ের দাবি। সে দাবি পূরণে সমাজের বিত্তশালীসহ রাজনৈতিক, সামাজিক সংগঠনগুলোকে সংঘবদ্ধভাবে গরম কাপড় বিতরণ জরুরি। অতীতে দেখা গেছে, সরকারের পক্ষ থেকে শীতের কাপড় বিতরণ করা হয় গরমকালে! এবার যেন সেটা না ঘটে, সে জন্য আগাম স্মরণ করে দেওয়া হয়েছিল পিএনএসের একটি প্রতিবেদনে।

গ্রামাঞ্চালে প্রবাদ আছে, ‘মাঘের শীত বাঘের গায়ে আর পৌষের শীত বউয়ের গায়ে।’ বলবান পশু রয়েল বেঙ্গল টাইগার বা বাঘকে কাঁপানো শীত কাল থেকে শুরু হবে। সে শীতে সাধারণ মানুষকে যেন আর দুর্ভোগ পোহাতে না হয়, সে জন্য রাজনৈতিক, সামাজিক; সর্বোপরি সমাজের বিত্তশালীসহ অগ্রসর মানুষদের এগিয়ে আসা অতীব জরুরি। জরুরি সে কাজটা সম্পাদনে যার যার অবস্থান থেকে উদ্যোগ নিতে বাধা কোথায়?

প্রতিবেদক : বিশেষ প্রতিনিধি- পিএনএস

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech