‘তসলিমা নাসরিনের সঙ্গে অমানবিক আচরণ করা হয়েছে’

  

পিএনএস ডেস্ক : বাংলাদেশের নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিনের সঙ্গে অমানবিক আচরণ করা হয়েছে বলে অভিযোগ করেছেন ভারতের পশ্চিমবঙ্গে বিজেপির রাজ্য সভাপতি দিলীপ ঘোষ। আসামে তরুণ বাঙালি কবি শ্রীজাত ব্যানার্জির অনুষ্ঠানে কট্টর হিন্দুত্ববাদী সংগঠনের বাধা দেয়ার বিষয়ে কথা বলতে গিয়ে এ মন্তব্য করেন দিলীপ। খবর জিনিউজের।

যে কারণে পশ্চিমবঙ্গ লেখকদের ‘হিংস্র’ বললেন তসলিমা নাসরিন ২০১৫ সালে কলকাতা থেকে তসলিমা নাসরিনকে তাড়িয়ে দেয়া হয়। বর্তমানে তিনি যুক্তরাষ্ট্রে বসবাস করছেন।

দিলীপ ঘোষ বলেন, ‘আজ বুদ্ধিজীবীদের উপর আক্রমণ হয়েছে। তখন তারা ব্যাপারটা বুঝতে পেরেছেন। তাই প্রতিবাদ জানাচ্ছেন। পশ্চিমবঙ্গ থেকে যখন তসলিমা নাসরিনকে তাড়ানো হল। তখন কোন ধরনের মানবিকতা ছিল? আজকে তারা মানবিকতার কথা বলছে। তাসলিমা নাসরিনের ক্ষেত্রে কোনও মানবতা দেখানো হয়নি।’

শ্রীজাতের অনুষ্ঠানে হিন্দুত্ববাদীদের হামলা ইস্যুতে পশ্চিমবঙ্গের মুখ্যমন্ত্রীর উদ্বেগ প্রকাশ নিয়ে দিলীপ বলেন, ‘বিশেষ বিশেষ লোকের জন্য মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়ের খুব কষ্ট হয়। তার মানবিকতা বিশেষ বিশেষ লোকের জন্য আছে। এখন সবাই অস্তিত্ব সঙ্কটে ভুগছে। যখন আমাকে শিলিগুড়িতে মারধর করা হল। তখন কোথায় ছিল বুদ্ধিজীবীরা।’

কবিতা পাঠে হিন্দুত্ববাদীদের বাধা দেয়ারও সমালোচনা করেন দিলীপ। তবে যা ইচ্ছা লেখার বা বলার অধিকার থাকা উচিত নয় বলে মনে করেন তিনি।

রাজ্য বিজেপির সভাপতি বলেন, ‘কিছু লোক অতি উৎসাহিত হয়ে এই কাজ করেছে। আগে যেটা লিখেছিলেন (অভিশাপ কবিতা), সেই বিষয়েই মতামত জানতে চেয়েছে। তবে সবারই লেখার অধিকার আছে। আবার কারও বাধা দেওয়ারও অধিকার আছে। দুটোই অধিকারের মধ্যে পড়ে। কারও বলার অধিকার আছে বলে যা ইচ্ছা বলবে। সেই অধিকারও কাউকে দেওয়া হয়নি।’

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech