গুড়িয়ে দেওয়া হলো ২৮৩টি অবৈধ স্থাপনা

  

পিএনএস (আহমেদ জামিল) : তুরাগ নদের উভয় তীরের ২৮৩টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করেছে বিআইডব্লিউটিএর কর্মকর্তারা। রাজধানীসহ সারাদেশে নদী দখলমুক্ত এবং অবৈধ স্থাপনা চলমান উচ্ছেদ অভিযানের তৃতীয় দফা (২৩ এপ্রিল) মঙ্গলবার থেকে টঙ্গী ব্রীজের নিকটবর্তী স্থান থেকে অভিযান শুরু করেছে বিআইডব্লিউটিএ (বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌপরিবহন কর্তৃপক্ষ)। তৃতীয় দফা এই অভিযানে (২৫ এপ্রিল) পর্যন্ত ২৮৩টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে।নিলাম হয়েছে ১৬ লাখ ৬০,০০০টাকা। গাজীপুরের টঙ্গী মডেল থানার টঙ্গী সড়ক ব্রীজ থেকে টঙ্গী রেল ব্রীজ পর্যন্ত তুরাগ নদের উভয় তীর এসব অভিযান চলে।

অভিযানের প্রথম দিনে সর্বমোট স্থাপনা-৫৫টি, বালুর গদি ০১টি, নিলাম ০১ লক্ষ ৮০ হাজার টাকা, অবমুক্তকৃত তীরভূমি ০১ একর।

দ্বিতীয় দিনে সর্বমোট স্থাপনা ১১৩ টি। পাঁচ তলা-০১ (টঙ্গী বাজার মসজিদ মার্কেটের অবশিষ্ট অংশ), চার তলা-০১টি, আধা পাকা -১৭টি
টিনের ঘর-৩৬টি, বালুর গদি ০৩টি, নিলাম১৪ লক্ষ ২৮ হাজার। অবমুক্তকৃত তীরভূমি ২ একর।

তৃতীয় দিনে উচ্ছেদকৃত সর্বমোট স্থাপনা ১১৫ টি, পাঁচ তলা-০১ টি, চার তলা-০৩টি, তিন তলা-০৭টি, দোতালা-১৫টি, একতলা-২০টি
আধা পাকা-৩১টি, টিন সেড-১০টি, টিনের ঘর-১৬টি, বাউন্ডারী ওয়াল-১২ টি ( ২ হাজার রানিং ফুট), অবমুক্তকৃত তীরভূমি ০২ একর।

চলমান অভিযানের তৃতীয় পর্বের চতুর্থ পর্যায় (২৮ এপ্রিল) রোববার টঙ্গী নদী বন্দর টার্মিনাল থেকে শুরু করা হবে। এই অভিযান প্রতিদিন সকাল ৯ টা থেকে বিকেল ৫ টা পর্যন্ত ) চলবে।

উলেখ্য (গত ২৯ মার্চ, ২০১৯ থেকে ১৮ এপ্রিল ২০১৯) পর্যন্ত প্রথম এবং দ্বিতীয় দফা উচ্ছেদে অভিযানে ৩ হাজার ১ শত ৭৫ টি অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করা হয়েছে। এসময় বুড়িগঙ্গা নদীর কামরাঙ্গীরচর খোলামোরা এলাকা হতে তুরাগ নদের কামারপাড়া ব্রীজ পর্যন্ত অভিযান পরিচালনা করা হয়।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech