পৃথিবীর ইতিহাসে এক বিরল ঈদ

  

পিএনএস( আহমেদ জামিল) : ঈদ শব্দের অর্থ আনন্দ আর মোবারক শব্দের অর্থ কল্যাণময়। সুতরাং ঈদ মোবারক অর্থ হলো আনন্দ কল্যাণময় হোক। ২০২০ সালের পবিত্র ঈদুল ফিতর পৃথিবীর ইতিহাসে এক ব্যতিক্রম ঈদ উদযাপন করবে মানুষ। ঈদ মানে খুশি। ঈদ মানে স্বজন আর বন্ধুদের মিলনমেলা, হৈ-হুল্লোড়, ঘুরে বেড়ানো। ঈদ মানে কোলাকুলি, করমর্দন। ঈদ মানে নাড়ির টানে গ্রামে গিয়ে মা-বাবা, ভাই বোনদের সঙ্গে একত্র হওয়া। নতুন জামাকাপড় পরা। কিন্তু এবার সেই অনাবিল আনন্দের আবহ নেই, খুশির জোয়ারও নেই তার পরও সবাইকে ঈদ মোবারক।

এবারের ঈদের স্লোগান হচ্ছে কোলাকুলি-করমর্দন বর্জন করুন, নিরাপদ দূরত্ববজায় রাখুন, সুস্থ থাকুন।সব কিছুর পর এই কঠিন সত্যকে উপলব্ধি করতে হবে, আবেগ ধরে রাখতে হবে নিরাপদ থাকতে হবে। কারণটা সকলেরই জানা এখন প্রয়োজন একটু সচেতনতা। জ্ঞান-বিজ্ঞানের শীর্ষে এসেও আজ আমরা কত অসহায় তা বুঝতে বাকি নেই পৃথিবীর মানুষের।

পবিত্র মাহে রমাদান (রহমত, মাগফেরাত ও নাজাত) মাস চলে গেল আমাদের নিকট থেকে। মহান সৃষ্টিকর্তার দয়ায় এখনো যারা সুস্থ আছেন, বেঁচে আছেন তারা সবাই লাভবান। তাই সৃষ্টিকর্তার এই করুণার শুকরিয়া আদায় করে পবিত্র ঈদের নামাজ শেষে আল্লাহর কাছে ক্ষমা প্রার্থনা চাই যেন আমাদের এই মহামারি থেকে রক্ষা করেন।

আজ পৃথিবীর নাস্তিক দেশের প্রধানরাও যেখানে আকাশের দিকে চেয়ে আছেন কখন মহান সৃষ্টিকর্তা ক্ষমা করবেন, করুণা করবেন। এই মহাবিপদের সময়ও সেখানে মানুষ পাপ-অনাচার থেকে নিজেদের সরিয়ে নিতে পারছে না। এই সময়ে এসেও ত্রাণ চুরি, দুর্নীতি, ঘুষ, ডাকাতি, ধর্ষণ, হত্যা থেকেও মানুষ সরে আসতে পারছে না। মানুষের বিবেক আজ নাড়া দিচ্ছে না, পাষণ্ড হয়ে গেছে আমাদের হৃদয়। আমরা এখনও অনুতাপ করতে শিখিনি, পাপ আমাদের রক্তের সাথে মিশে গেছে।

আমরা মহান সৃষ্টিকর্তাকে ভুলে গেছি যিনি আমাদের সৃষ্টি করেছেন যার ভালোবাসা মানুষের ভালোবাসার চেয়ে ৯৯ ভাগ বেশি। আমরা এই একভাগ ভালোবাসার মোহতে লিপ্ত হয়ে পরিবারের জন্য, ছেলে-মেয়েদের জন্য বিবেক ধ্বংস করে দিচ্ছি। লোভ-লালসা গ্রাস করে নিচ্ছে আমাদের সব নৈতিকতা। সব কিছু নিজের করে নেওয়ার মিথ্যা চেষ্টায় ভুলে যাই যে এই পৃথিবী থেকে এক সময় শূন্য হাতে ফিরে যেতে হবে আমাদের, তার পরেও খাইখাই স্বভাব যাচ্ছে না আমাদের।

ঈদ মানে আত্মার পরিশুদ্ধি, ধনী-গরিব, উঁচু-নিচু সব ভেদাভেদ ভুলে গিয়ে সৌহার্দ্য ও সংহতি প্রকাশের এক উদার উৎসব । এই দিনে সৃষ্টিকর্তা তার বান্দাদের অনুগ্রহ দ্বারা বারবার ধন্য করেন।

রমজানের রোজা শুরুর দিন থেকেই সিয়াম সাধনার এ মাসে মানুষ তার লোভ- লালসা পরিত্যাগ করে দীর্ঘ একমাসব্যাপী রোজা রেখে নিজের আত্মা পরিশুদ্ধ করেন । আর এ পরিশুদ্ধি শেষে রমজানের শেষ দিনে আকাশের এক কোণে বাঁকা চাঁদের হাঁসি ঈদের জানান দিয়ে দেয় সবাইকে । এখনও যারা লোভ থামাতে পারেনি, গরীবের হক নষ্ট করছে,ঘুষ, দুর্নীতি, অর্থ পাচার, চুরি ধর্ষণ, হত্যা করছে তারা কিভাবে আত্মা পরিশুদ্ধ করবে? করোনা তো কাউকে ‘করুণা’ করছে না। এটা কবে যাবে, কি হবে কেউই বলতে পারছে না। তাই সময় এসেছে আমাদের আত্মা পরিশুদ্ধ করার যদি আমরা এই সময়ে এসেও নিজেদের আত্মা পরিশুদ্ধ করতে না পারি তাহলে আমরাই হয়তো পৃথিবীর সবচেয়ে অভাগা জাতি হিসেবে পৃথিবীর ইতিহাসে থাকবো! সবাই ভালো থাকুন, নিরাপদে থাকুন সুস্থ থাকুন। ঈদ মোবারক।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন