১২ বছর ধরে চিকিৎসা দিচ্ছিলেন ভুয়া ডাক্তার!

  

পিএনএস ডেস্ক : রাজধানীর মতিঝিলে ইসলামী ব্যাংক হাসপাতালে একজন ইউনানী চিকিৎসককে গ্রেপ্তার করেছে র‌্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়ন (র‌্যাব)। ইউনানী চিকিৎসক হয়েও অ্যালোপ্যাথিক চিকিৎসা দেওয়ার অভিযোগে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে দুই বছরের কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে তাকে।

আজ রোববার দুপুর ১২টা থেকে চার ঘণ্টা ধরে হাসপাতালটিতে অভিযান চালায় র‌্যাব-৩-এর একটি দল। দলে থাকা র‌্যাব সদর দপ্তরের নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট পলাশ কুমার বসু বিষয়টির সত্যতা নিশ্চিত করেন।

তিনি বলেন, ‘ভুয়া চিকিৎসকসহ বেশ কিছু অভিযোগ ছিল হাসপাতালটির বিরুদ্ধে। ভুয়া চিকিৎসক মিজানুর রহমানকে দুই বছরের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে। হাসপাতালটির ফার্মেসিতে অনুমোদনহীন ওষুধ রাখায় শফিউল ইসলাম ও আবদুল জলিল নামের দুজনের প্রত্যেককে পাঁচ লাখ টাকা অর্থদণ্ড দেওয়া হয়েছে। হাসপাতালের অ্যাসিস্ট্যান্ট সুপারভাইজার মো. হাসিনুর রহমানকে সাড়ে ৪ লাখ টাকা জরিমানা, অনাদায়ে তিন মাসের বিনাশ্রম কারাদণ্ড দেওয়া হয়েছে।’

র‌্যাব জানায়, ভুয়া চিকিৎসক মিজানুর নিজেকে ডাক্তার হিসেবে উল্লেখ করে আসছিলেন। এমনকি হৃদরোগ বিষয়ে উচ্চতর ডিগ্রি থাকার কথাও ব্যবস্থাপত্রে লিখতেন তিনি।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন