রাজধানীতে স্ত্রীকে হত্যা করে স্বামীর আত্মহত্যা চেষ্টা!

  

পিএনএস ডেস্ক : রাজধানীর ভাটারায় একটি টিনশেড বাসায় মণিরা ডালবৎ (২৭) নামে এক গৃহবধূকে হত্যার পর তার স্বামী দিলীপ আত্মহত্যার চেষ্টা করেছে বলে জানিয়েছে পুলিশ।

বুধবার দুপুরে মনিরার মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল মর্গে পাঠানো হয়েছে।

দিলীপকে রাজধানীর সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এঘটনায় নিহত মণিরার স্বজনদের পক্ষ থেকে থানায় হত্যা মামলা দায়ের করা হয়েছে।

ভাটারা থানার এস আই মো. হাসান পারভেজ জানান, মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১টার দিকে ঢালিবাড়ি বালুরমাঠ এলাকার একটি টিনশেড বাসায় স্ত্রী মণিরাকে ভারী কোনো বস্তু দিয়ে আঘাত করে মৃত্যু নিশ্চিত করে দিলীপ। এরপর ধারালো অস্ত্র দিয়ে নিজেই নিজের গলাকাটার চেষ্টা করে। পরবর্তীতে তার চিৎকারে আশপাশের লোকজন জড়ো হয়ে পুলিশকে খবর দেয়।

রাত আড়াইটার দিকে ঘটনাস্থলে পুলিশ উপস্থিত হয়ে বাসা থেকে মণিরার মৃতদেহ উদ্ধার করে। আহত স্বামী দিলীপকে উদ্ধার করে সোহরাওয়ার্দী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়।

ভাটারা থানার পরিদর্শক (তদন্ত) রফিকুল হক জানান, প্রাথমিক তদন্তে জানতে পেরেছি, স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে ঝগড়ার জের ধরে দিলীপ তার স্ত্রীকে শীল দিয়ে মাথায় ও কপালে আঘাত করে। এতে মণিরা মারা যান। এরপর চাকু দিয়ে দিলীপ নিজের গলায় আঘাত করে হত্যার অপরাধ থেকে বাঁচার চেষ্টা চালায়। এ ঘটনায় স্বামী দিলীপকে গ্রেপ্তার দেখিয়ে চিকিৎসা দেওয়া হচ্ছে।

তিনি আরও জানান, মণিরার বাড়ি ময়মনসিংহ ধোবাউড়া উপজেলার বালিগাঁও গ্রামে। তারা খ্রিষ্ট ধর্মাবলম্বী। মণিরার বাবার নাম প্রয়াত এডিওয়াট ডালবৎ। অন্যদিকে, দিলীপ পেশায় অটোরিকশা চালক। তাদের ঘরে ১২ বছর বয়সী এক মেয়ে রয়েছে। গ্রামের বাড়িতে নানির কাছে থাকে সে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন