ধর্ষণের মামলায় ভিপি নুর গ্রেফতার

  

পিএনএস ডেস্ক : ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় ছাত্র সংসদের সাবেক সহ-সভাপতি নুরুল হক নুরকে ধর্ষণের মামলায় গ্রেফতার করা হয়েছে।

সোমবার (২১ সেপ্টেম্বর) রাতে তাকে গ্রেফতার করা হয়।

এরআগে হক নুরসহ ৬ জনের বিরুদ্ধে ধর্ষণের মামলা করা হয়। বিশ্ববিদ্যালয়ের বিবিএ তৃতীয় বর্ষের এক ছাত্রী লালবাগ থানায় এই মামলা করেছেন বলে প্রাথমিকভাবে জানা গেছে।

তবে বিষয়টি নিয়ে বিচলিত নয় বলে জানিয়েছেন নুরুল হক নুর। এক ফেসবুক লাইভে নুর বলেন, ধর্ষণ সেনসেটিভ বিষয়। গ্রেপ্তার হতে পারি। আমি বলব, জেল না খাটলে তো নেতা হওয়া যায় না। আমরা যেহেতু মানুষের অধিকার আদায়ে কাজ করছি, জেল তো খাটতেই হবে।

তিনি বলেন, গ্রেপ্তার করলে কী করে, বলা তো যায় না। বিএনপির অনেক নেতাকে মেরে ফেলা হয়েছে। তবে আল্লাহ না চাইলে কিছুই হবে না। আমরা নীতি-নৈতিকতা ঠিক রেখে আন্দোলন চালিয়ে যেতে চাই।

নুরের বক্তব্য, আমি এখনও মামলার পুরো বিষয় জানি না। কে এই মামলার বাদী? কারা এর আসামি। এগুলো নিয়ে বিচলিত হতে চাই না। হয়তো এটা সরকারের ষড়যন্ত্রের অংশ। এছাড়া মামলাকারী ছাত্রলীগের নেত্রী। তাকে টাকা দেয়ার বিনিময়ে এই মামলাটি করানো হয়েছে।

নুরুল হক নুর বলেন, ‘ভিপি নুর আলোচিত ছাত্রনেতা। তার বিরুদ্ধে মামলা হবে এটাই স্বাভাবিক। মামলা একটা কেন, শতাধিক হবে। ধর্ষণের মামলা হয়েছে, খুনের মামলা হবে। টাকা পাচারের মামলা হয়নি, এটা ভালো খবর।’

তিনি আরো বলেন, ভিপি নুরের চরিত্র হননের জন্য মামলা হবে। ছাত্রলীগ মিছিল করবে, যুবলীগ মাঠে নামবে; এটাই স্বাভাবিক।

নুর ছাড়াও এই মামলার অন্য আসামিরা হলেন- হাসান আল মামুন, নাজমুল হাসান, মো. সাইফুল ইসলাম, নাজমুল হুদা ও আবদুল্লাহ হিল বাকি। এর মধ্যে মূল অভিযুক্ত হাসান আল মামুন, আর নুরের বিরুদ্ধে ধর্ষণে সহায়তার অভিযোগ আনা হয়েছে।

বিষয়টি নিয়ে লালবাগ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কে এম আশরাফ উদ্দিন বলেন, ‘তার বিরুদ্ধে ধর্ষণ মামলা হয়েছে। আমরা বিষয়টি তদন্ত করে দেখছি।’

পিএনএস/এসআইআর




 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন