শৈত্যপ্রবাহ নিয়ে যে সুখবর দিলো অধিদপ্তর!

  

পিএনএস ডেস্ক: তাপমাত্রা ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের নিচে নামলে তাকে শৈত্যপ্রবাহ বলা হয়। স্বাভাবিকভাবেই শৈত্যপ্রবাহের সময় তীব্র শীত অনুভূত হয়, যা স্বাভাবিক। এ শীতে ডিসেম্বরে কয়েকটি শৈত্যপ্রবাহ বয়ে গেছে দেশের বিভিন্ন অঞ্চলে। জানুয়ারির এই সময়েও শৈত্যপ্রবাহ বইছে।

তবে ঢাকায় এ বছর এখনও শৈত্যপ্রবাহের দেখা মেলেনি। শৈত্যপ্রবাহের সম্ভাবনা নেই। ফলে এবার তীব্র শীতের আমেজ পাচ্ছেন না ঢাকাবাসী।

প্রতিবছর ঢাকায় শৈত্যপ্রবাহ হলেও এবার না হওয়াটা অস্বাভাবিক বা প্রকৃতির বিরূপ আচরণ বলে মনে করছেন আবহাওয়াবিদরা। এ বিষয়ে আবহাওয়াবিদ মো. ওমর ফারুক বলেন, চলতি বছর এখনও ঢাকায় শৈত্যপ্রবাহ হয়নি। এ শীতে সামনেও ঢাকায় শৈত্যপ্রবাহ হওয়ার সম্ভাবনা কম।

তিনি বলেন, ঢাকায় প্রতিবছর এ রকম ঘটে না, শৈত্যপ্রবাহ হয়। অন্যান্য বছরের তুলনায় এ বছর শীতে তাপমাত্রা একটু বেশি আছে। তাই ঢাকায় শৈত্যপ্রবাহ হওয়ার সম্ভাবনা কম।

এছাড়া ঢাকার বাইরে নওগাঁ জেলার ওপর দিয়ে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ অব্যাহত রয়েছে। শুক্রবার (১৫ জানুয়ারি) নওগাঁ জেলায় দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। তবে সকালে সূর্যের দেখা মিলেছে।

রাতভর কুয়াশা আর সকালে সূর্যের দেখা মেলায় কয়েকদিন ধরে জেলায় দিন ও রাতের তাপমাত্রা ওঠা-নামা করছে। রাতভর হিমেল বাতাস থাকার কারণে তাপমাত্রা কমে যাচ্ছে বলে জানান জেলার বদলগাছী আঞ্চলিক আবহাওয়া পর্যবেক্ষকেরা।

বদলগাছী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগার সূত্রে জানা যায়, আজ (১৫ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয় ৬ দশমিক ৫ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে বৃহস্পতিবার (১৪ জানুয়ারি) সকাল ৯টায় এই তাপমাত্রা ছিল ৬ দশমিক ৭ ডিগ্রি সেলসিয়াস।

বদলগাছী আবহাওয়া পর্যবেক্ষণাগারের রিপন আহম্মেদ বলেন, সকাল ৯টায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হলেও বেলা বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে তা বাড়ছে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন