প্রতারণামূলক বিজ্ঞাপন প্রচারের অভিযোগ পেলে ব্যবস্থা: তথ্যমন্ত্রী

  

পিএনএস ডেস্ক: তথ্যমন্ত্রী ড. হাছান মাহমুদ বলেছেন, বিটিভিসহ বিভিন্ন গণমাধ্যমে প্রতারণামূলক কোনো বিজ্ঞাপন প্রচারের সুযোগ নেই। এ ধরনের বিজ্ঞাপন প্রচারের বিষয়ে কোনো অভিযোগ পাওয়া গেলে জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা-২০১৪ অনুযায়ী ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

মঙ্গলবার (১৯ জানুয়ারি) জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে সাংসদ (জামালপুর-৫) মোজাফফর হোসেনের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা বলেন। এর আগে স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে সংসদের বৈঠক শুরু হয়।

সাংসদ মোজাফফর হোসেন জানতে চান, দেশের স্যাটেলাইট চ্যানেলগুলোতে বিভিন্ন হারবাল, ইউনানী ও হোমিও চিকিত্সায় এমন বিজ্ঞাপন প্রচার হচ্ছে, যেন এমন কোনো রোগ নেই যা তাদের ওষুধে ভালো হয় না! প্রতারণামূলক এসব বিজ্ঞাপনের প্রচার বন্ধ করাসহ বিজ্ঞাপন দাতাদের আইনে সোপর্দ করার কার্যকরি কোনো উদ্যোগ নেওয়া হবে কি-না? উত্তর ‘না’ সূচক হলে তার কারণ কী তাও জানতে চান তিনি। জবাবে মন্ত্রী বলেন, বাংলাদেশ টেলিভিশন বিজ্ঞাপন প্রচারের ক্ষেত্রে ‘জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা-২০১৪’ অনুসরণ করে থাকে। এছাড়া বাংলাদেশ টেলিভিশন বিজ্ঞাপন প্রচারের ক্ষেত্রে তথ্য মন্ত্রণালয় থেকে বিভিন্ন সময় জারিকৃত নির্দেশনা অনুসরণ করে থাকে। জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা অনুযায়ী বাংলাদেশ টেলিভিশনে বিভিন্ন ধরনের রোগের গ্যারান্টিসহ চিকিৎসা ও এই সংক্রান্ত প্রতারণামূলক কোনো বিজ্ঞাপন প্রচারের সুযোগ নেই।

তথ্যমন্ত্রী বলেন, জাতীয় সম্প্রচার নীতিমালা-২০১৪ এর অনুচ্ছেদ ৪.২.৬ তে বলা হয়েছে, ওষুধজাতীয় পণ্য, হাসপাতাল, ক্লিনিক, ডায়াগনোস্টিক সেন্টার, স্বাস্থ্যকেন্দ্র ইত্যাদির বিজ্ঞাপনের ক্ষেত্রে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের অনুমোদন ছাড়পত্র বিজ্ঞাপনদাতার কাছে আছে কি-না তা নিশ্চিত হতে হবে। অন্য টেলিভিশন চ্যানেলে এ ধরনের বিজ্ঞাপন প্রচারের ব্যাপারে কোনো অভিযোগ পাওয়া গেলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন