আরো বাড়তে পারে শীত

  

পিএনএস ডেস্ক: গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টির পর কমতে শুরু করেছে তাপমাত্রা। বাড়ছে শীতের তীব্রতা। ছুটির দিনে দেশের কোথাও কোথাও দিনের মধ্যভাগেও দেখা নাও মিলতে পারে সূর্যের আলো। শীতের সঙ্গে থাকবে হালকা বাতাস। এছাড়া বিভিন্ন স্থানে বয়ে যাচ্ছে মৃদু শৈত্যপ্রবাহ। শুক্রবার (২২ জানুয়ারি) বাংলাদেশ আবহাওয়া অধিদফতরের আবহাওয়াবিদ মো. রুহুল কুদ্দুস এ তথ্য জানান।

দেশের তেঁতুলিয়ায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে ৯ দশমিক ৬ ডিগ্রি সেলসিয়াস জানিয়ে তিনি বলেন, গত দুই-তিনদিন তাপমাত্রা কিছুটা বৃদ্ধি পেলেও আজ শুক্রবার রাত থেকে তা কমতে শুরু করেছে। দেশের উত্তরাঞ্চলে অনেক জায়গাতেই শীত বাড়তে শুরু করেছে।

আবহাওয়া অফিস জানায়, গত কয়েকদিনের চেয়ে সারাদেশে রাতের তাপমাত্রা কিছুটা কমতে পারে। গত কয়েকদিনের চেয়ে আজ থেকে কিছু কিছু এলাকায় দুই থেকে তিন ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রা কমতে পারে। তবে মধ্যরাত থেকে দেশের অধিকাংশ স্থানে ঘন কুয়াশা দেখা দিবে।

বৃহস্পতিবার পর্যন্ত দেশের অধিকাংশ এলাকাতে ১০ ডিগ্রি সেলসিয়াসের ওপরে তাপমাত্রা ছিল। আজ তা পরিবর্তন হয়েছে। অনেক এলাকাতেই মৃদু শৈত্যপ্রবাহ বয়ে যাচ্ছে। বিশেষ করে রাজশাহী, রংপুর বিভাগে। এসব এলাকাতে দিনের আলো দেখা যাবে দেরিতে। এছাড়া গত দুইদিনে দেশের বিভিন্ন এলাকাতে গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টিও দেখা গেছে। মূলত এই বৃষ্টির পরেই শীতের তাপমাত্রা কমতে শুরু করেছে। তবে সামনের দিনে বৃষ্টির সম্ভাবনা নেই।

শুক্রবার পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, আংশিক মেঘলা আকাশসহ আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। মধ্যরাত থেকে সকাল পর্ন্ত সারাদেশের অধিকাংশ স্থানে দেখা দিবে ঘন কুয়াশা। কোথাও কোথাও মাঝারি কুয়াশাও থাকবে। তবে নদী ও ফাঁকা মাঠে দেখা দিবে ঘন কুয়াশা।

আগামী ৫ দিনের আবহাওয়া পরিস্থিতি বিষয়ে বলা হয়েছে, তাপমাত্রা সামান্য বৃদ্ধি পেতে পারে। এছাড়া ৪৮ ঘণ্টার আবহাওয়ায় সামান্য পরিবর্তন দেখা দেওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। বৃহস্পতিবার সন্ধ্যায় ঢাকায় বাতাসের গতি ও দিক ছিল উত্তর/উত্তর-পশ্চিম দিক থেকে ঘণ্টায় ৮ থেকে ১২ কি.মি.। আর সন্ধ্যা ৬টায় বাতাসের আপেক্ষিক আদ্রতা ছিল ৫১ শতাংশ।

উপমহাদেশীয় উচ্চ চাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তার আশপাশে অবস্থান করছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে রয়েছে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন