দেড় লাখ শিশুর কণ্ঠে ধ্বনিত হবে বঙ্গবন্ধুর ভাষণ

  

পিএনএস ডেস্ক: খুলনায় স্বাস্থ্যবিধি মেনে জুম ওয়েবিনারের মাধ্যমে এক লাখ ৫০ হাজার ১৫১ জন ক্ষুদে শিক্ষার্থীর কণ্ঠে উচ্চারিত হবে ‘এবারের সংগ্রাম আমাদের মুক্তির সংগ্রাম, এবারের সংগ্রাম স্বাধীনতার সংগ্রাম…’।

শনিবার (৬ মার্চ) বিকালে খুলনা জেলা প্রশাসক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ তথ্য জানান জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ হেলাল হোসেন। অনুষ্ঠানে জুম ওয়েবিনারের মাধ্যমে প্রধান অতিথি হিসেবে সংযুক্ত হন সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

জেলা প্রশাসক জানান, ২০১৯ সালের ৭ মার্চ সহস্র কণ্ঠে (১০০১ জন), ২০২০ সালের ১০ জানুয়ারি মুজিববর্ষের কাউন্ট-ডাউনের সূচনালগ্নে ‘কাউন্ট-ডাউন প্রথম প্রহরে মুজিববর্ষ’ শিরোনামে ১৯২০ জন শিশু বঙ্গবন্ধু ও ১৯২০ জন আলেমের কণ্ঠে এবং সর্বশেষ ২০২০ সালের ৭ মার্চ ১৯ হাজার ২০০ জন শিশু বঙ্গবন্ধুর কণ্ঠে জেলা স্টেডিয়ামে জাতির পিতার ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ মুখস্থ অনুকৃতি আয়োজন করা হয়েছিল।

বিগত বছরের মতো এবারও বৈশ্বিক মহামারি কোভিড-১৯ পরিস্থিতিকে যথাযথ বিবেচনায় খুলনা জেলায় জুম ওয়েবিনারের মাধ্যমে দেড় লক্ষাধিক শিশু বঙ্গবন্ধুর সমন্বয়ে ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ উপস্থাপন (অনুকৃতি) অনুষ্ঠান আয়োজিত হতে যাচ্ছে।

খুলনা মহানগরীর এবং খুলনার ৯টি উপজেলায় অবস্থিত ১ হাজার ৫০০টি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও মাদ্রাসা সংযুক্ত হবে। প্রতিটি বিদ্যালয় থেকে অন্যূন ১০০ জন শিশু বঙ্গবন্ধু (ক্ষুদে শিক্ষার্থী) যুক্ত থাকবে।

খুলনা মহানগরীর বয়রার ‘খুলনা সরকারি মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ’ মাঠে আয়োজিত হবে ‘শিশু বঙ্গবন্ধু সমাবেশ এবং ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ উপস্থাপন (অনুকৃতি) অনুষ্ঠান’ এর মূল অনুষ্ঠান।

মূল অনুষ্ঠানস্থলে মহানগরীর শ্রেষ্ঠ ১০টি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান থেকে নির্বাচিত ১৫১ জন শিশু বঙ্গবন্ধুর (ক্ষুদে শিক্ষার্থী) কণ্ঠে এবং একই সঙ্গে সমগ্র জেলা থেকে জুম ওয়েবিনারে সংযুক্ত ১ লাখ ৫০ হাজার জন শিশু বঙ্গবন্ধুর কণ্ঠে একযোগে বঙ্গবন্ধু ৭ মার্চ ১৯৭১ সালে যে সময়ে ভাষণ দিয়েছিলেন ঠিক একই সময়ে জেলাব্যাপী সমস্বরে ধ্বনিত হবে বঙ্গবন্ধুর সেই কালজয়ী ভাষণ।

মূল অনুষ্ঠানস্থলে ১৫১ জন শিশু বঙ্গবন্ধু (ক্ষুদে শিক্ষার্থী) অংশগ্রহণের ব্যাখ্যাটি হলো: বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী উপলক্ষে ১০০ জন + স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী (৫০ বছর পূর্তি) উপলক্ষে ৫০ জন + বাঙালির একমাত্র অবিসংবাদিত নেতা বঙ্গবন্ধুকে নির্দেশক ১।

আর সমগ্র জেলার আয়োজনে ১ লাখ ৫০ হাজার ১৫১ জন শিশু বঙ্গবন্ধু সমাবেশ ধারণাটি এরূপ: বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী ১০০ বছরকে ১০০০০০ (এক লাখে) রূপান্তর এবং স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী ৫০ বছরকে ৫০ হাজারে রূপান্তরের মাধ্যমে মোট ১ লাখ ৫০ হাজার- সব মিলিয়ে (১৫০০০০ + ১৫১) জন; সর্বমোট ১ লাখ ৫০ হাজার ১৫১ জন।

সব শিশু বঙ্গবন্ধু কেন্দ্রীয় অনুষ্ঠান স্থলের সাথে মিল রেখে কর্মসূচি অনুযায়ী অনুষ্ঠানে অংশগ্রহণপূর্বক সমস্বরে বঙ্গবন্ধুর ঐতিহাসিক ৭ মার্চের ভাষণ উপস্থাপন (অনুকৃতি) করবে।

পিএনএস/এএ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন