ভারতে তরুণীকে নির্যাতন: দুজন রিমান্ডে

  

পিএনএস ডেস্ক : ভারতে নির্যাতনের শিকার তরুণীকে পাচারে জড়িত থাকার অভিযোগে গ্রেফতার আরও দুই জনের ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত। মঙ্গলবার (০৮ জুন) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মামুনুর রশীদ শুনানি শেষে রিমান্ডের আদেশ দেন।

রিমান্ডে যাওয়া আসামিরা হলেন—আমিরুল ইসলাম (৩২) ও আবদুস সালাম মোল্লা (৩৬)। এদিন মামলার তদন্ত কর্মকর্তা পুলিশ পরিদর্শক মহিউদ্দিন ফারুক আসামিদের আদালতে হাজির করে ১০ দিন করে রিমান্ড আবেদন করেন। রাষ্ট্রপক্ষে সহকারী পাবলিক প্রসিকিউটর হেমায়েত উদ্দিন খান হিরণ আসামিদের রিমান্ড মঞ্জুরের প্রার্থনা করেন।

আসামিপক্ষে কোনো আইনজীবী ছিলেন না। এ সময় আসামিদের কিছু বলার আছে কিনা, জানতে চান বিচারক। তখন আমিরুল ইসলাম বলেন, আমি ভাড়ায় মোটরসাইকেল চালাই। সোমবার বিকেলে আমি ঘুমিয়ে ছিলাম। আমার মোবাইলে একটা ফোন আসে। মোটরসাইকেল ভাড়া নেবে বলে বাজার থেকে আমার মোবাইল নম্বর সংগ্রহ করে ফোন দেয়। আমাকে বাজারে আসতে বলে। আমি বাজারে যাই। এরপর আমাকে গ্রেফতার করে ডিবি অফিসে নিয়ে আসে।

তিনি আরও বলেন, আমার পরিবারে সাতজন লোক। আমরা খুবই গরিব। আমার বাবা ভ্যান চালান। আমি ঘটনার বিষয়ে কিছুই জানি না।

এরপর আদালত তাদের দুই জনের ৫ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেন। এর আগে মামলাটিতে গত ৩ জুন মেহেদি হাসান, মহিউদ্দিন ও আবদুল কাদেরের ৫ দিন করে রিমান্ড মঞ্জুর করেন আদালত।

পাচার হওয়ার পর ৭৭ দিনের নির্যাতন ও বন্দিদশা থেকে পালিয়ে দেশে ফিরে রাজধানীর হাতিরঝিল থানায় গত ১ জুন মামলা দায়ের করেছিলেন এক তরুণী। মামলায় মোট ১২ জনকে আসামি করা হয়েছে।

পিএনএস/জে এ

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন