পোস্টার নিয়ে কেন্দ্রের নির্দেশনা উপেক্ষিত

  

পিএনএস: আওয়ামী লীগের ২০তম জাতীয় কাউন্সিল ঘিরে পোস্টার, ব্যানার ও ফেস্টুন নিয়ে কড়া নির্দেশনা দেয়া হয় দলীয় শীর্ষ নেতাদের পক্ষ থেকে। বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান, প্রধানমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগ সভানেত্রী শেখ হাসিনা ও তার পরিবারসহ জাতীয় চার নেতার বাইরে কারও ছবি পোস্টারে না দেয়ার নির্দেশনা ছিল। ওই নির্দেশনা অমান্য করলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া হবে বলে দল থেকে কড়া নির্দেশনা দেয়া হয়েছিল। এর আগে দলের সাধারণ সম্পাদক চিঠি দিয়ে একই নির্দেশনা জারি করেন। কিন্তু মাঠ পর্যায়ে এ নির্দেশনা উপেক্ষিত থেকে গেছে। রাজধানীর বিভিন্ন এলাকায় সরজমিন দেখা গেছে, নির্দেশ উপেক্ষা করে ছাপানো বহু পোস্টার।

অন্যদিকে কাউন্সিলের জন্য নির্বাচিত স্লোগানও বিকৃতি করছেন নেতাকর্মীরা। ১৯শে সেপ্টেম্বর প্রচার ও প্রকাশনা উপ-কমিটির বৈঠক শেষে ঘোষণা দিয়ে বলা হয়, এবারের কাউন্সিলে আওয়ামী লীগের স্লোগান হবে ‘উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে চলেছি দুর্বার। এখন সময় বাংলাদেশের মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার’। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ওই স্লোগান চূড়ান্ত করেন। পরে স্লোগানে কিছুটা পরিবর্তন করে দলীয় পোস্টারে ছাপানো হয় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে চলেছি দুর্বার। এখন সময় বাংলাদেশের মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার। কাউন্সিলকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন এলাকায় টানানো পোস্টারে দেখা গেছে এর বিকৃতি।

রাজধানীর বিজয় সরণি মোড়ে মঞ্চ ও সাজসজ্জা উপ-কমিটির বিশালাকৃতির পোস্টারে স্লোগান হিসেবে লেখা রয়েছে-উন্নয়নের মহাসড়কে এগিয়ে চলেছি দুর্বার। এখন সময় শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশের মাথা উঁচু করে দাঁড়াবার। এর বাইরে বিভিন্ন ওয়ার্ডের নেতাদের পোস্টার ও ব্যানারে স্লোগান নিয়ে বিভিন্ন ধরনের বিকৃতি দেখা গেছে। অতীতের মতোই ব্যানার-বিলবোর্ডে বঙ্গবন্ধু ও শেখ হাসিনার ছোট ছবির পাশে বড় করে শোভা পাচ্ছে দলীয় নেতাদের ছবি। এর আগে গত ডিসেম্বরে এ বিষয়ে দলের সংসদ সদস্য, জেলা ও থানা পর্যায়ের নেতাদের চিঠি পাঠিয়েছিলেন সৈয়দ আশরাফুল ইসলাম। একই নির্দেশনা ছিল দলটির অঙ্গ ও সহযোগী সংগঠনের নেতাদের প্রতিও। ওই চিঠিতে বলা হয়েছিল যে, ‘আমরা গভীর উদ্বেগের সঙ্গে লক্ষ্য করছি, দেশের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের নামে বিভিন্ন ধরনের রাজনৈতিক বিলবোর্ড, ব্যানার ও ফেস্টুন শোভা পাচ্ছে, যাতে সংগঠনের বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীদের ছবি থাকছে। অথচ সেখানে বাংলাদেশের স্থপতি জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ও আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ হাসিনার ছবি খুব ছোট আকারে পরিলক্ষিত হচ্ছে, যা দেশের সাধারণ মানুষের কাছে দৃষ্টিকটু। সুতরাং জাতির পিতা ও জননেত্রী শেখ হাসিনার ছবি ছাড়া অন্য কারও ছবি থাকলে সেসব বিলবোর্ড, পোস্টার, ব্যানার, ফেস্টুন সরিয়ে ফেলার জন্য সারা দেশে আপনার সংগঠনের সব নেতাকর্মীদের নির্দেশ দেয়ার আহ্বান জানানো হলো।

পরে কাউন্সিলকে কেন্দ্র করে ৮ই অক্টোবর দলের প্রেসিডিয়াম সদস্য ওবায়দুল কাদের বলেন, সম্মেলন সংক্রান্ত তোরণ, দেয়াল লেখা, পোস্টার, বিলবোর্ড ও ব্যানারে বঙ্গবন্ধু, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, সজীব ওয়াজেদ জয়সহ বঙ্গবন্ধু পরিবারের সদস্য এবং প্রয়াত জাতীয় নেতৃবৃন্দ ছাড়া অন্য কারও ছবি ব্যবহার করা যাবে না। বঙ্গবন্ধুর পরিবার নিয়ে তিনি বলেন, এই পরিবার তো আগুন যোগ্যতায়, উৎকর্ষে। তারা প্রত্যেকে সুপ্রতিষ্ঠিত।

কাজেই তারা আমাদের আদর্শ হতে পারেন। এর আগে, গত বছরের ১৭ই মার্চে তিনি বলেন, আমি সবচেয়ে বেশি ব্যথিত হই বঙ্গবন্ধুর ছবির পাশে চিহ্নিত চাঁদাবাজ-ধান্দাবাজ, টাউট-বাটপার লোকদের ছবি দেখলে। বঙ্গবন্ধুর ছবির পাশে এসব ভূমি দখলকারী ও লুটপাটের সঙ্গে জড়িতদের ছবি দেখতে চাই না। আমি নেতাকর্মীদের বলবো- এসব ছবি ছিঁড়ে ফেলুন। মাঠপর্যায়ের কয়েকজন নেতাকর্মী জানিয়েছেন, দলের নীতিনির্ধারকদের দৃষ্টি আকর্ষণ করতেই এ চেষ্টা তাদের। এছাড়া দলীয় নির্দেশনা থাকলেও কিছু নেতাকর্মীদের ব্যানারে নিজের ছবি দেখতেও আগ্রহী। ফলে শীর্ষ নেতাদের আস্থাভাজন হতেই অনেকে নির্দেশের তোয়াক্কা করছে না।



পিএনএস/বাকিবিল্লাহ্



 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech