‘‘ওবায়দুল কাদের ‘কান ধরে উঠবস’ করে বললেন রাজনীতি করবেন না’’

  

পিএনএস ডেস্ক: ‘আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের কান ধরে উঠবস করে বলেছিলেন, আমি আর রাজনীতি করবো না। তিনি একদিন রিমান্ড থেকে এসেই কান ধরে উঠবস করে বললেন, ভাই আমি আর রাজনীতি করবো না। আর পাগলামী করবো না। আমি বললাম কেনো ভাই, কি হয়েছে। তিনি বল্মিলেন, আমি লেখা-পড়া করি। আমি একটা লেখা-পড়া জানা মানুষ। ভালো জায়গায় থাকতে চাই।’

সোমবার (৮ এপ্রিল) বিকেলে ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে কারাগারে থাকার স্মৃতিচারণ করে বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য মির্জা আব্বাস রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইন্সটিটিউশন মিলনায়তনে ঢাকা মহানগর বিএনপির (উত্তর) আয়োজিত এক কর্মীসভায় এ কথা বলেন।

তিনি আরো বলেন,‘আমি এখন তাকে (ওবায়দুল কাদের) বলতে চাই, আপনি কথাবার্তা উল্টাপাল্টা বলতেছেন। ফলে রাজনীতি বাদ দিয়ে দিন। ঘরে বসে লেখা-পড়া করেন। কারণ আওয়ামী লীগের লোকজন গোপন কথা ফাঁস করেন না। কিন্তু আপনি তো গোপন কথা ফাঁস করছেন।’

মির্জা আব্বাস বলেন, ওবায়দুল কাদের ছাড়াও ওই সময় আমাদের সাথে ইঞ্জিনিয়ার মোশাররফ সাহেবও ছিলেন। তখন আমরা এক সাথে খেতাম। আমরা বাসা থেকে খাবার আানি এবং তারাও বাসা থেকে খাবার আনে। আমরা তাদের খাবার খাই, আর তারা আমাদের খাবার খায়। ওই সময় তারা বলেছিলেন, বিএনপি ক্ষমতায় গেলে দেশের উন্নয়নের জন্য আমরা সমর্থন দেবো। আর আমরা ক্ষমতায় গেলে দেশের উন্নয়নের জন্য আপনারা সমর্থন দেবেন। সবাই ভালো, এত ভালো আওয়ামী লীগ আল্লাহ কসম, এত ভালো, কি মহীউদ্দিন খান আলমগীর, কি শেখ সেলিম, কি নাসিম- এত ভালো? কিন্তু বের হওয়ার পরেই চেহারা পাল্টে গিয়েছে। এখন দেখা হলেও কথা কয় না।

নগর বিএনপির নবগঠিত কমিটি প্রসঙ্গে তিনি বলেন, নগর বিএনপির উত্তর ও দক্ষিণের জন্য আমরা যে কমিটি দিয়েছিলাম সেটা এদিকে- ওদিক করে কমিটি দেওয়া হয়েছে। তবে আমি করি, কমিটি যেমনি হোক, নেতাকর্মীরা যদি চেষ্টা করে তাহলে এই দল অনেক শক্তিশালী হতে পারে।

নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, আপনাদের মনে রাখতে হবে, আমাদের যে বয়স, যদি আপনারা ফেল করেন তাহলে আমরা এই বয়সে বিএনপিকে কি অবস্থায় দেখে যাবো, সেটা আল্লাহ জানেন। তবে আমরা দেখে যেতে চাই, বিএনপি ক্ষমতায় এসেছে। দেখে যেতে চাই, দেশনেত্রী খালেদা জিয়া প্রধানমন্ত্রী হয়েছেন এবং দেখে যেতে চাই, তারেক রহমান বিদেশ থেকে বীরের বেশে দেশে ফিরে এসেছেন। এই কারণে বিএনপির আগামীতে কোনো সুযোগ হাত ছাড়া এবং ফেল করার সুযোগ নাই।

আয়োজক সংগঠনের সহ-সভাপতি মুন্সি বজলুল বাছিদ আঞ্জু’র সভাপতিত্বে সভায় বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য গয়েশ্বর চন্দ্র রায়, চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, যুগ্ম মহাসচিব হাবিব-উন-নবী-খান সোহেল, ঢাকা মহানগর বিএনপির (উত্তর) সাধারণ সম্পাদক আহসান উল্লাহ হাসান প্রমুখ বক্তব্যে রাখেন।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech