খোকন-মাহামুদার অডিও রেকর্ড ফাঁস

  

পিএনএস ডেস্ক: নারায়ণগঞ্জ মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাহামুদা মালার কথোপকথনের ‘গালিগালাজপূর্ণ একাধিক অডিও রেকর্ড ফাঁস’ হয়েছে। এ নিয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করেছেন জেলা আওয়ামী লীগের শীর্ষ একাধিক নেতা। এমনকি তৃণমূলের নেতাকর্মীরা ক্ষুব্ধ হয়েছেন।

রোববার সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে ভাইরাল হওয়া ওই অডিও রেকর্ড নিয়ে বইছে সমালোচনার ঝড়।

জানা গেছে, ফাঁস হওয়া অডিও মোট পাঁচটি। এর মধ্যে চারটি হচ্ছে খোকন সাহা ও মাহামুদা মালার বিভিন্ন সময়ের কথোপাকথন, যেগুলো কেউ রেকর্ড করে ফাঁস করেছেন। এ কথোপকথনে নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের একাধিক নেতা, যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাদের গালিগালাজ করা হয়েছে। অন্য অডিওটি ছাত্রলীগের এক নেতাকে মোবাইল ফোনে মাহামুদা মালার গালাগালির।

দলের দু’জন দায়িত্বশীল নেতার ফাঁস হওয়া অডিও সম্পর্কে নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক একাধিক মহানগর আওয়ামী লীগ নেতা বলেছেন, এতে তারা স্তম্ভিত ও ক্ষুব্ধ। তারা ভাবতেই পারছেন না খোকন সাহা ও মাহামুদা মালা তাদেরই দীর্ঘদিনের রাজনৈতিক সহকর্মীকে অকথ্য, অশ্রাব্য ও অশ্লীল ভাষায় গালাগাল করে কথাবার্তা বলেছেন। এসব অডিও ফাঁস হওয়ায় তাদের আসল চেহারা প্রকাশ পেয়েছে। তারা বলেছেন, আমাদের অভিভাবক প্রধানমন্ত্রী ও দলের সভানেত্রী শেখ হাসিনা। তিনি আমাদের শেষ আশ্রয়স্থল। আমরা তার সিদ্ধান্তের অপেক্ষায় আছি।

নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর যুব মহিলা লীগের কমিটি গঠন নিয়ে কেন্দ্রীয় যুব মহিলা লীগ সঠিক ও যুগোপযোগী সিদ্ধান্ত নিয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন দলটির শীর্ষ পর্যায়ের একাধিক নেতা।

এ ব্যাপারে যুবলীগ ও ছাত্রলীগের নেতাকর্মীরা ক্ষোভ প্রকাশ করে বলেছেন, রাজনৈতিক কোনো ব্যাকগ্রাউন্ড না থাকা সত্ত্বেও এমন প্রশ্নবিদ্ধদের যুব মহিলা লীগের শীর্ষ পদে জায়গা দেয়ার চেষ্টার নেপথ্য কারণ তারা বুঝে গেছেন।

এদিকে ফাঁস হওয়া অডিও প্রসঙ্গে বক্তব্য নেয়ার জন্য মহানগর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক খোকন সাহা ও সাংগঠনিক সম্পাদক মাহামুদা মালার মোবাইলে একাধিকবার ফোন করলেও তারা রিসিভ করেননি।


পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech