বিচারপতি অপসারণের ক্ষমতা সংসদের হাতে থাকতে হবে: নাজমুল হুদা

  

পিএনএস ডেস্ক: সাবেক যোগাযোগমন্ত্রী ও তৃণমূল বিএনপির আহ্বায়ক ব্যারিস্টার নাজমুল হুদা বলেছেন, বিচারপতিদের অপসারণের ক্ষমতা অবশ্যই জাতীয় সংসদের হাতে থাকতে হবে। এর কোনো বিকল্প নেই।

বঙ্গবন্ধু আওয়ামী আইনজীবী পরিষদের উদ্যোগে আয়োজিত সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির দক্ষিণ হলে প্রতিবাদ সভায় যোগ দিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

বৃহস্পতিবার দুপুরে সংগঠনের আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুনের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত সভায় সাবেক মন্ত্রী অ্যাডভোকেট সাহারা খাতুন, বার কাউন্সিলের ভাইস চেয়ারম্যান ও সংগঠনের যুগ্ম আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট আবদুল বাসেত মজুমদার, ব্যারিস্টার রাবেয়া ভুইয়া, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও সংগঠনের সদস্য সচিব ব্যারিস্টার শেখ ফজলে নূর তাপস এমপি, অ্যাডভোকেট মাহবুব আলী এমপি, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির সহ-সভাপতি মো. ওয়াজিউল্লাহ, সমিতির সাবেক সম্পাদক অ্যাডভোকেট মমতাজউদ্দিন আহমেদ মেহেদী, অ্যাডভোকেট আজহার উল্লাহ ভুইয়া, সানজিদা খানম এমপি, এফ আর খান, পরিমল চন্দ্র গুহ, ব্যারিস্টার তানজিব-উল আলম, ইয়াদিয়া জামান, ব্যারিস্টার মোকসেদুল ইসলাম, নুরে আলম উজ্জ্বল প্রমুখ বক্তৃতা করেন।

অ্যাডভোকেট ইউসুফ হোসেন হুমায়ুন বলেন, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানকে কটাক্ষ করে ষোড়শ সংশোধনীতে লেখা পর্যবেক্ষণ প্রত্যাহার না করা পর্যন্ত কোনো আপস নেই। আন্দোলন চলবে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকে কটূক্তি করার পর এখন তাকে প্রশংসা করে যতই বক্তব্য দেন তাতে ওই অপরাধ ঘুচবে না। শনিবার নতুন কর্মসূচি ঘোষণা করা হবে।

আবদুল বাসেত মজুমদার বলেন, রায়ের পর্যবেক্ষণে যত কথা বলা হয়েছে তার সবই বিএনপির রাজনীতির কথা। রায়ের পর বিএনপি মিষ্টি বিতরণ করেছে। এ রায়ে জাতির প্রত্যাশা পূরণ হয়নি। তাই এ রায় বাতিল করে নতুন করে রায় লিখতে হবে, যে রায়ে বঙ্গবন্ধুর স্বাধীকার আন্দোলনের সঠিক ইতিহাস থাকবে।

ব্যারিস্টার ফজলে নূর তাপস এমপি বলেন, ষোড়শ সংশোধনীর রায় পেনড্রাইভের রায়। এ রায় কোন ল্যাবরেটরি থেকে উৎপত্তি হয়েছে তা আমরা জানি। সময়মতো তা প্রকাশ করা হবে।

পিএনএস/হাফিজুল ইসলাম

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech