‘এভাবে একটি দেশের গণতন্ত্র চলতে পারে না’

  

পিএনএস ডেস্ক: বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য ব্যারিস্টার মওদুদ আহমেদ বলেছেন,‘আইনমন্ত্রী সাংবাদিকদের সামনে প্রথম যে চিঠি উপস্থাপন করেছিলেন সেখানে সাতটি ভুল ছিল। পরবর্তী সময়ে প্রধান বিচারপতি যখন লন্ডনের উদ্দেশ্যে দেশত্যাগ করলেন সেখানে তিনি যে চিঠি মিডিয়ার সামনে দিলেন সেখানে একটি ভুলও ছিল না। এখান থেকে প্রমাণিত হয় সরকার পরিকল্পিতভাবে সুদূরপ্রসারী ষড়যন্ত্র করে বিচার বিভাগকে ধ্বংস করার জন্যই এই অপরাজনীতি করেছে। এভাবে একটি দেশের গণতন্ত্র চলতে পারে না।’

দেশে আইনের শাসন বলে কিছু নেই- এমন দাবি করে তিনি আরো বলেন, ‘দেশে যেমন দুর্যোগ চলছে তেমনি গণতন্ত্রেও এখন মহাদুর্যোগ চলছে।’

শনিবার বিকালে নাগরিক অধিকার আন্দোলন ফোরামের উদ্যোগে জাতীয় প্রেসক্লাবে ভাষাসৈনিক, প্রবীণ রাজনীতিবিদ অলি আহাদের পঞ্চম ও সমাজবিজ্ঞানী ও রাজনৈতিক বিশ্লেষক ড. পিয়াস করিমের তৃতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষে আয়োজিত এক স্মরণ সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ব্যারিস্টার মওদুদ বলেন, ‘বর্তমান সরকার আইনের শাসনকে তছনছ করে দিয়েছে। বিচার বিভাগকে ধ্বংস করে তারা নিজেদেরকে গণতান্ত্রিক সরকার বলছে।’ তিনি বলেন, ‘ভারতে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত সাংবাদিকদেরকে বলছেন প্রধান বিচারপতি দেশে এসে তার ক্ষমতায় আবারো অধিষ্ঠিত হতে পারবেন। অন্যদিকে অ্যাটর্নি জেনারেলসহ সরকারের গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তিরা বলছেন প্রধান বিচারপতি নতুন করে তার জায়গায় বসার কোনো সুযোগ নেই। এখন আমরা কার কথা বিশ্বাস করবো।’

বিএনপির এই নেতা দেশবাসীকে ঐক্যবদ্ধভাবে বর্তমান মিথ্যাচার ও ফ্যাসিস্ট সরকারের বিরুদ্ধে আন্দোলনে অংশগ্রহণের আহ্বান জানান।

অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথির বক্তব্য দেন ভাষাসৈনিক অলি আহাদের মেয়ে ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা।

পিএনএস/আনোয়ার

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech