আ.লীগ নেতারা হাটে হাঁড়ি ভেঙে দিয়েছেন বললেন রিজভী

  

পিএনএস ডেস্ক : কক্সবাজার যাওয়ার পথে ফেনীতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে হামলার পেছেনে সংসদ সদস্য নিজাম হাজারী রয়েছে দাবি করে আওয়ামী লীগ নেতা আজহারুল হক আরজুর বক্তব্যকে ‘হাটে হাঁড়ি ভাঙার’ মতো বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব রুহুল কবির রিজভী।

তিনি বলেন, সত্যকে ধামাচাপা দেয়ার অপচেষ্টা কখনোই সফল হয় না, শাক দিয়ে মাছ ঢাকা যায় না। ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের নেতারা সংবাদ সম্মেলন করে হাটে হাঁড়ি ভেঙে দিয়েছেন। তারা বলেছেন সম্প্রতি কক্সবাজার যাওয়ার পথে ফেনীতে বিএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে যে হামলা হয় তার নেপথ্যে ছিল ফেনী জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক স্থানীয় সংসদ সদস্য নিজাম উদ্দিন হাজারী। অথচ মিথ্যা মামলা দেয়া হয়েছে বিএনপি নেতাকর্মীদের নামে।

বুধবার(২২ নভেম্বর) সকাল সাড়ে ১১ টায় রাজধানীর নয়াপল্টনে দলের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এসব কথা বলেন।

রুহুল কবির রিজভী বলেন, বিএএনপি চেয়ারপারসন খালেদা জিয়ার গাড়িবহরে যে হামলা চালিয়েছে সেটি সরকারের সর্বোচ্চ পর্যায়েই যে পরিকল্পনা করা হয়েছিল সে বিষয়ে আর কোনো সন্দেহ নাই। জনগণ এটা আগেই বুঝেছে, সবাই বুঝেছে। এখন তারা নিজেরাই বলছে। অথচ শত শত বিএনপি নেতা-কর্মীর বিরুদ্ধে মিথ্যা মামলা দেওয়া হয়েছে। আটক করা হয়েছে বেশকিছু নেতা-কর্মীকে।

তাদের ওপর বর্বর নির্যাতন চালিয়ে হামলার মিথ্যা নাটকও সাজানো হয়েছিল। কিন্তু সত্যকে ধামাচাপা দেওয়ার অপচেষ্টা কখনই সফল হয় না, শাক দিয়ে মাছ ঢাকা যায় না।

‘সম্প্রচার আইন-২০১৭’কে ভয়াবহতম কালো আইন বলে অভিহিত করে বিএনপির সিনিয়র যুগ্ম মহাসচিব বলেন, ‘সম্প্রচার আইন-২০১৭’ নামে যে আইনটি জাতীয় সংসদে পাস করার প্রস্তুতি চলছে, তা ভয়াবহতম আইন। এই আইন সরকার বাস্তবায়ন করলে বিরোধী মতের ওপর নতুন করে নির্যাতন নেমে আসবে।

তিনি বলেন, ভোটারবিহীন সরকার মানুষের বাকস্বাধীনতা হরণ করতে একের পর এক কালো আইন তৈরি করছে। গণমাধ্যমের স্বাধীনতা বলতে আজ কিছুই অবশিষ্ট নেই। সরকারের বিরুদ্ধে সমালোচনা করলে শুধু গণমাধ্যম বন্ধই নয়, প্রতিনিয়ত হামলা ও খুনের শিকার হতে হচ্ছে সাংবাদিকদের।

রিজভী বলেন, গণমাধ্যম ও মানুষের বাকস্বাধীনতাকে সম্পূর্ণরুপে হরণ করতে সম্প্রচার আইন করতে যাচ্ছে সরকার। অশ্লীল, অসত্য, মিথ্যা, বানোয়াট তথ্য প্রকাশ, জনবিশৃঙ্খলা সৃষ্টি, দেশের অখণ্ডতার প্রতি হুমকি— এই ধরনের বিষয় এনে সরকার এমন কালো আইন করতে যাচ্ছে।

সংবাদ সম্মেলনে উপস্থিত ছিলেন- বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা আব্দুস সালাম, যুগ্ম মহাসচিব খায়রুল কবির খোকন, সাংগঠনিক সম্পাদক শামা ওবায়েদ, কেন্দ্রীয় নেতা হাবিবুল ইসলাম হাবিব, আজিজুল বারী হেলাল, এম এ মালেক, কাজী আবুল বাশার প্রমুখ।

পিএনএস/ জে এ/ মোহন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech