খালেদা জিয়ার রায় সচিবালয়ে ড্রাফট হয়েছিল: ফারুক

  

পিএনএস ডেস্ক: জিয়া অরফানেজ ট্রাস্ট দুর্নীতি মামলার রায়ের আগেই সচিবালয়ে ড্রাফট করা হয়েছিল বলে দাবি করেছেন বিএনপির চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা ও সাবেক বিরোধী দলীয় চিফ হুইপ জয়নাল আবদীন ফারুক।

শুক্রবার (২৩ ফেব্রুয়ারি) জাতীয় প্রেসক্লাবের সামনে দেশ বাঁচাও মানুষ বাঁচাও আন্দোলন আয়োজিত এক মানববন্ধনে তিনি এ মন্তব্য করেন। বিএনপির চেয়ারপারসন বেগম খালেদা জিয়ার মুক্তি এবং দলটির ভাইস-চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদুসহ সব রাজবন্দিদের নিঃশর্ত মুক্তির দাবিতে এ মানববন্ধনের আয়োজন করা হয়।

জয়নাল আবদীন ফারুক বলেন, ‘আমাদের আইনজীবীরা প্রমাণ করে উপস্থাপন করতে পেরেছেন একটা ঘষামাজার যে মামলা সে মামলায় বেগম খালেদা জিয়াকে কোন প্রকারেই সাজা দিতে পারে না। তাহলে এই সাজা কোথায় থেকে আসলো? আমরা শুনতে পেরেছি রায়ের চারদিন আগে বিচারিক আদালতের কোন একজন সচিবালয়ে নাকি সেই মামলার ড্রাফট করা হয়েছে কত বছর কাকে সাজা দেয়া হবে।’

তিনি বলেন, ‘আজকে আমরা জোর গলায় চিৎকার করে বলতে চাই বেগম জিয়ার ও তারেক রহমানের বিরুদ্ধে কাল্পনিক মামলায় সাজা দেয়া হয়েছে। আর বাংলাদেশের অবৈধ প্রধানমন্ত্রী হয়ে আপনি অবৈধ সংসদে বেগম জিয়াকে কারাগারে রেখে আপনি নির্বাচনী প্রচারণা শুরু করেছেন। এটা কি গণতন্ত্রের নমুনা। এটা গণতন্ত্রের নমুনা নয়।’

১৯৭৫ সালে ২ মিনিটে সংসদে আওয়ামী লীগ সরকার যে বাকশাল কায়েম করেছিল, বাংলাদেশের সকল সংবাদপত্র বন্ধ করে দিয়েছিল বেগম খালেদা জিয়াকে কারাগারে রেখে তারা আবারো সেই পরিকল্পনা করছেন বলে মন্তব্য করেন তিনি।

প্রধানমন্ত্রীকে অনুরোধ জানিয়ে তিনি বলেন, ‘আপনি যে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্য রাখছেন সেই বক্তব্যগুলো দয়া করে বন্ধ করে বেগম জিয়াকে মুক্ত করে দিন। দেশে গ্রহণযোগ্য একটি নির্বাচনের ব্যবস্থা করুন।’

আয়োজক সংগঠনের সভাপতি কে এম রকিবুল ইসলাম রিপনের সভাপতিত্বে মানববন্ধনে আরও বক্তব্য দেন বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা হাবিবুর রহমান হাবিব, যুগ্ম-মহাসচিব অ্যাডভোকেট সৈয়দ মোয়াজ্জেম হোসেন আলাল, সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক শহিদুল ইসলাম বাবুল, ন্যাপের মহাসচিব গোলাম মোস্তফা ভূইয়া প্রমুখ।

পিএনএস/আলআমীন

 

@PNSNews24.com

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন
Developed by Diligent InfoTech